ডুমুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছাকির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে গতকাল শনিবার সকাল ৮টার দিকে বিদ্যালয় থেকে একটি র‍্যালি বের করা হয়। র‍্যালিটি বিদ্যালয় থেকে বের হয়ে স্থানীয় বালিয়াবাজার হয়ে আবার বিদ্যালয় চত্বরে এসে শেষ হয়। র‍্যালি শেষ হওয়ার পর স্থানীয় কয়েক ব্যক্তি এসে তাঁকে (প্রধান শিক্ষক) বলেন, র‍্যালির দায়িত্বে থাকা শিক্ষক হাসিবুর রহমান দীর্ঘ সময় শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘জিয়া তোমায় মনে পড়ে, আজকের এই দিনে’ স্লোগান দেন। হাসিবুরের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি তা স্বীকার করেন।

প্রধান শিক্ষক ছাকির হোসেন বলেন, ‘আমি হাসিবুরকে স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভার মাইকে ক্ষমা চাওয়ার জন্য বলি। সভা শেষে মাইকে অনিচ্ছাকৃত ত্রুটির জন্য উপস্থিত সবার কাছে ক্ষমা চান তিনি।’

প্রধান শিক্ষক আরও জানান, পরবর্তী সময়ে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ছাড়াও অন্য সদস্যদের বিষয়টি জানানো হয়। আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে বিদ্যালয়ের সভায় শিক্ষক হাসিবুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি তাঁকে কেন স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না, তা জানতে চেয়ে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রতিনিধি প্রহ্লাদ চন্দ্র হালদারকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী সাত দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে ডুমুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হাসিবুর রহমান বলেন, স্বাধীনতা দিবসের র‍্যালিতে অনিচ্ছাকৃতভাবে জিয়াউর রহমানের নামে স্লোগান দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধাদের নামেও স্লোগান দিয়েছেন। কাজটি ঠিক হয়নি বুঝতে পেরে মাইকে সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

ডুমুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম ফজলুল হক প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষক হাসিবুরের স্লোগানের বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি এক–দুইবার নয়, দীর্ঘক্ষণ ধরে একই স্লোগান দিয়েছেন। এ জন্য বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে।

তালা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান বলেন, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে। তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন