default-image

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় স্বামীর মারধরে ইয়াসমিন বেগম (২৬) নামের চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক নারীর গর্ভপাত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার বিকেলে উপজেলার দুপ্তারা ইউনিয়নের নতুন বান্টি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় সোমবার সন্ধ্যায় ইয়াসমিনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তি ওই গ্রামের মো. আবদুল্লাহর ছেলে আজিজুল হক।

ইয়াসমিনের ভাই মোহাম্মদ হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ইয়াসমিন ও আজিজুলের সংসারে তিন সন্তান রয়েছে। প্রথম সন্তানের জন্মের আগে থেকেই আজিজুল একাধিক নারীর সঙ্গে পরকীয়ায় লিপ্ত ছিলেন। এ নিয়ে ঝগড়ার জেরে প্রায় সময়ই মারধরের শিকার হতেন ইয়াসমিন। একই কারণে সোমবার বিকেলে তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে সন্তানসম্ভবা স্ত্রী ইয়াসমিনকে মারধর ও পেটে আঘাত করেন আজিজুল। এতেই গর্ভপাত হয় ইয়াসমিনের। গর্ভপাত হওয়া চার মাসের শিশু ও গুরুতর আহত ইয়াসমিনকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান ইয়াসমিনের প্রতিবেশীরা।

বিজ্ঞাপন

আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সুমন মিয়া জানান, নবজাতকসহ গর্ভপাতের শিকার এক নারীকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘এমন একটি খবর সম্পর্কে আমরা জানতে পেরেছি। তবে এখন পর্যন্ত (সোমবার রাত ১০টা) কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। ঘটনার খোঁজ নিতে রাতে পুলিশ পাঠানো হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন