বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ সকালে শহরের সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ছাড়াও সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শিক্ষার্থীরা এই কেন্দ্রে টিকা নিতে এসেছিল। তবে বিশৃঙ্খলা আর অব্যবস্থাপনায় টিকা না নিতে পেরে ফিরে যায় অনেকেই।

শিক্ষার্থী ছাড়াও সদর উপজেলার সাধারণ নিবন্ধনকারীরা টিকা নিতে আসেন সদর হাসপাতাল কেন্দ্রে। হুড়োহুড়ি আর বিশৃঙ্খল পরিবেশে টিকা পাননি তাঁরাও। নির্ধারিত তারিখে দ্বিতীয় ডোজ নিতে আসা ব্যক্তিদেরও কেউ কেউ ফিরে গেছেন।

কেন্দ্রে দুই মেয়েকে টিকা দিতে নিয়ে আসা শহরের সরুই এলাকার বাসিন্দা মো. মনিরুজ্জামন বলেন, এটা অব্যবস্থাপনার চরম দৃষ্টান্ত ছাড়া আর কিছু নয়। এখানে কোনো কর্তৃপক্ষ আছে বলে মনে হয়নি। টিকা নিতে এসে হুড়োহুড়িতে মেয়েরা অসুস্থ হয়ে পড়ে।

টিকাদানকক্ষের বাইরে সারিতে দাঁড়িয়ে থাকা কান্দাপাড়া এলাকার আয়শা বেগম জানান, তিনি গত শনিবারও দ্বিতীয় ডোজ নিতে এসে ফিরে গেছেন। আজও কেউ কিছু বলছেন না। কিন্তু টিকা দেওয়ার তারিখ চলে যাচ্ছে।

কেন্দ্রের চিত্র সম্পর্কে জানতে চাইলে বাগেরহাটের সিভিল সার্জন জালাল উদ্দিন আহমেদ মুঠোফোনে জানান, টিকাদান ঠিকমতো চলছে। রেড ক্রিসেন্টের যুবপ্রধানের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে।

টিকাকেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার বিষয়ে কথা বলার জন্য রেড ক্রিসেন্টের বাগেরহাট ইউনিটের যুবপ্রধান শরিফুল ইসলামের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ধরেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন