বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিহত ব্যক্তির নাম মুহাম্মদ আবদুর রহিম (৪৫)। তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতপ্রবাসী ছিলেন। বৃহস্পতিবার তিনি দেশে আসেন। তাঁর বাড়ি উপজেলার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের চৌরাগা পাড়া গ্রামে। তাঁর বাবার নাম নুরুল আলম।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের সম্প্রসারণ কাজের কারণে আগের লাগানো বৈদ্যুতিক খুঁটিগুলো এখনো রয়ে গেছে সড়কের ৩ থেকে ৪ ফুট অংশজুড়ে। এতে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। এই প্রবাসীও সড়কের ওপর থেকে না সরানো খুঁটিতে প্রাণ হারালেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিবারের সদস্যরা জানান, নিহত আবদুর রহিম মায়ের অসুস্থতার খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দেশে আসেন। এর মধ্যে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সোমবার সকালে মাকে ভর্তি করান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। হাসপাতাল থেকে দিনে কয়েকবার বাড়ি আসা–যাওয়ার পর রাতে তাঁর অসুস্থ মাকে আবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখতে যাচ্ছিলেন আবদুর রহিম।

মোটরসাইকেলে করে যাওয়ার সময় পৌর এলাকায় চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কে নির্মাণাধীন সড়ক থেকে না সরানো বৈদ্যুতিক খুঁটিতে ধাক্কা লেগে ছিটকে পড়েন তিনি। দুমড়েমুচড়ে যায় তাঁর মোটরসাইকেল। স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নাবিল চৌধুরী রাত ১০টায় প্রথম আলোকে বলেন, আবদুর রহিম নামের ওই ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই মারা যান। তাঁকে হাসপাতালে আনা হয়েছে মৃত অবস্থায়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন