বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, বাঙ্গালহালিয়া থেকে আসা বালুবাহী একটি ট্রাক রাইখালী এলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশাকে ধাক্কা দেন। এ সময় পারুল দাশ ও তাঁর স্বামী মাখন দাশ অটোরিকশা থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। পরে তাঁদের স্থানীয় চন্দ্রঘোনা ক্রিশ্চিয়ান হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক পারুলকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মাখন দাশ মারা যান।

পুলিশ কর্মকর্তা ইকবাল বাহার বলেন, নিহত পারুল দাশের ভাই দিলীপ দাশ বাদী হয়ে গতকাল রাতে চন্দ্রঘোনা থানায় অজ্ঞাত চালককে আসামি করে মামলা করেন। ঘটনার পরপরই চালক পালিয়ে যান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন