বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও নিহত ফখরুদ্দিনের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ৬ নভেম্বর রাত ৯টার দিকে সৌদিপ্রবাসী দুই বন্ধু ফখরুদ্দিন ও শফিকুল মহাসড়কের রাজঘাটার একটি কমিউনিটি সেন্টারের চায়ের দোকান থেকে মোটরসাইকেলে সাতকানিয়ার কেরানীহাটের দিকে যাচ্ছিলেন। সড়কের ছদাহার চারা বটতল এলাকায় পৌঁছালে দ্রুতগতির একটি মাইক্রোবাস মোটরসাইকেলের পেছনে ধাক্কা দেয়। এ সময় মোটরসাইকেলের আরোহী ওই দুজন সড়কে ছিটকে পড়ে যান।

নিহত ফখরুদ্দিনের চাচাতো ভাই মোহাম্মদ ওসমান গণি প্রথম আলোকে জানান, সৌদিপ্রবাসী দুই বন্ধু সেদিন মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হয়েছিলেন। মাইক্রোবাসের ধাক্কায় শফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে নিহত হন। ফখরুদ্দিনকে অচেতন অবস্থায় প্রথমে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তাঁকে চট্টগ্রাম নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। সেখানে ১৬ দিন অচেতন থাকা অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে তাঁর সৌদি আরবে যাওয়ার কথা ছিল।

দোজাহারী হাইওয়ে থানা-পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জানান, ওই দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে সৌদিপ্রবাসী এক যুবক নিহত হন। একই দুর্ঘটনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৬ দিন পর আরেক সৌদিপ্রবাসী যুবক আজ সকালে মারা যান। এ ঘটনায় থানায় নিয়মিত মামলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন