default-image

হবিগঞ্জ শহরে সরকারি অনুমোদন ছাড়া হাসপাতাল পরিচালনার অভিযোগে দুটি বেসরকারি হাসপাতালকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে জরিমানার অর্থ দিতে না পারায় একটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপককে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শামসুদ্দিন মো. রেজা এ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় এর মধ্যে জরিমানার অর্থ দিতে না পারায় একটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপককে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানকালে শহরের সবুজবাগ এলাকায় অবস্থিত খোয়াই হাসপাতালের সরকারি অনুমোদন দেখতে চাইলে তা দেখাতে পারেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া হাসপাতালের অস্ত্রোপচার কক্ষের ভেতরে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ পাওয়া যায়। এ সময় হাসপাতালটিতে রেজিস্টার্ড চিকিৎসক ও নার্স পাওয়া যায়নি। এসব কারণে ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জরিমানার অর্থ অনাদায়ে এ হাসপাতালের ব্যবস্থাপক সুমন আহমেদকে তিন মাসের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে হাসপাতালটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

একই ভ্রাম্যমাণ আদালত শহরের বাসস্ট্যান্ডের কাছে অবস্থিত জাপান বাংলাদেশ হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে চিকিৎসা দেওয়ার অভিযোগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন আদালত।

অভিযানকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন হবিগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. ওমর ফারুক ও হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনসের একদল পুলিশ সদস্য।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0