বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউএনও শাহিদুল আলম প্রথম আলোকে বলেন, মুহাম্মদ জসিম ওই ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাদামতল এলাকায় নদীর বাঁধ-সংলগ্ন এলাকা থেকে কয়েক দিন ধরে এক্সকাভেটর দিয়ে মাটি কেটে বিক্রি করছিলেন বলে অভিযোগ ছিল। গতকাল বিকেল চারটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করে অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। এ সময় মাটি খননের কাজে ব্যবহৃত ট্রাক ও এক্সকাভেটর চালককে আটক করা হয়। পরে তাঁদের মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। আর সাবেক ওই জনপ্রতিনিধিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন