বিজ্ঞাপন

তমরুদ্দী পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মীর হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির সময় মাথার পেছনে আঘাতের চিহ্ন ও চুল ওঠানো অবস্থায় পাওয়া গেছে। ওই নারীকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের বলেন, ফাতেমা আক্তারের লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন