default-image

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) বাসভবনে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত ইউএনও ওয়াহিদা খানমের বাবা ওমর আলীর (৭০) শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। আগের চেয়ে কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ওমর আলীকে নিউরো সার্জারি ওয়ার্ড থেকে ভিআইপি কেবিনে নেওয়া হয়েছে। তাঁর সঙ্গে থাকা তাঁর স্ত্রী রমিছা বেগম বলেন, ‘তিনি (ওমর আলী) খাওয়াদাওয়া করেছেন। শরীরে ব্যথা থাকলেও অনেকটা ভালো। কথাবার্তাও বলছেন।’

বিজ্ঞাপন

নিউরো সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান তোফায়েল হোসেন ভূইয়া বলেন, ওমর আলীর অবস্থা এখন আগের চেয়ে উন্নতি হয়েছে। একটি চিকিৎসক দলের মাধ্যমে তাঁর চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

গত বুধবার মধ্যরাতে ইউএনওর সরকারি বাসভবনের ভেন্টিলেটর কেটে দুর্বৃত্তরা তাঁর শয়নকক্ষে ঢুকে পড়ে। এর আগে দুর্বৃত্তরা ওই বাসভবনের নিরাপত্তাপ্রহরীকে বেঁধে প্রহরীকক্ষে তালা দিয়ে আটকে রাখে। ইউএনওর বাবা ওমর আলী প্রতিদিন সকালে হাঁটতে বের হন। কিন্তু গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে তিনি হাঁটতে বের না হওয়ায় সঙ্গীরা তাঁর খোঁজ নেওয়ার জন্য বাসভবনে যান। অনেক ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়া না পেয়ে তাঁরা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে ইউএনও, তাঁর বাবা ও প্রহরীকে উদ্ধার করে।

ইউএনওকে রংপুরে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জরুরি ভিত্তিতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালে আনা হয়। তাঁর বাবাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল রাতে ইউএনওর আড়াই ঘণ্টার জটিল অস্ত্রোপচার হয়।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন