বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে গত ৪ অক্টোবর ও ৩০ সেপ্টেম্বর একই এলাকা থেকে আরও দুটি মৃত ডলফিন উদ্ধার করা হয়। সব মিলিয়ে গত ৪ বছরে হালদাতে ৩৩টি মৃত ডলফিন উদ্ধার করা হলো। এসবের অধিকাংশের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়ার কথা জানিয়েছেন গবেষকেরা।

হালদা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচারের (আইইউসিএন) লাল তালিকাভুক্ত (অতি বিপন্ন প্রজাতি) একটি জলজ প্রাণী এই ডলফিন। বিশ্বের বিভিন্ন নদীতে অতি বিপন্ন প্রজাতির ডলফিন আছে মাত্র ১ হাজার ১০০টি। এর মধ্যে শুধু হালদাতেই ছিল ১৭০টি। এর মধ্য থেকে গত ৪ বছরে ৩৩টি ডলফিনের মৃত্যুর ঘটনা উদ্বেগজনক।

নদী গবেষক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান মনজুরুল কিবরিয়া প্রথম আলোকে বলেন, নদীতে আবার বড় বড় জাহাজ ও বালুবাহী ড্রেজার চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে। উদ্ধার হওয়া মৃত ডলফিনটি জালে আটকা পড়ে অথবা ড্রেজারের আঘাতে মারা যেতে পারে।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ শাহিদুল আলম বলেন, সর্বশেষ উদ্ধার করা ডলফিনের দেহ পচে যাওয়ায় মৃত্যুর কারণ চিহ্নিত করা যায়নি। এটির দৈর্ঘ্য ৩ ফুট এবং ওজন প্রায় ১৫ কেজি। ডলফিনের মৃত্যু ও হত্যা রোধে নতুন কর্মপরিকল্পনা হাতে নেওয়া হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন