পুলিশ ও স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার গড়দীঘি বাজারের পাশে স্থানীয় বাসিন্দা বেলুন ব্যবসায়ী আলিমুল ইসলাম তাঁর বাড়িতে বিক্রির জন্য বেলুনে গ্যাস ভরার কাজ করছিলেন। গ্যাস ভরার জন্য আলিমুল স্থানীয় শিশু-কিশোরদের কাজে লাগাতেন। আজ দুপুরে ওই বাড়িতে বেলুনে গ্যাস ভরানোর কাজ হচ্ছিল। এ সময় হঠাৎ বিকট শব্দে গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হলে সেখানে থাকা কিশোর সোহাগ ও শিশু লিমন গুরুতর আহত হয়। বিস্ফোরণে সোহাগের দুটি পা ও ডান হাত উড়ে যায় এবং শিশু লিমনের শরীরে বিভিন্ন স্থানে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে সোহাগ মারা যায়। লিমনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসকেরা তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠান। ঘটনার পর থেকেই গ্যাস বেলুনের ব্যবসায়ী আলিমুল পলাতক।

দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, নিহত কিশোরের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সময় কী ধরনের গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছিল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ঘটনার পর গ্যাস বেলুন বিক্রেতা আলিমুল পালিয়েছেন বলে তিনি জানান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন