এ বিষয়ে ঢাকা ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক দিনমণি শর্মা প্রথম আলোকে বলেন, আগুনে পুরো ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। ভবনের পলেস্তারা, টাইলসসহ বিভিন্ন অংশ পুড়ে খসে পড়েছে। পাঁচতলার সিলিংয়ের ছাদের বড় একটি অংশ ভেঙে পড়েছে। ভবনটি পুরোপুরি ব্যবহারের অনুপযোগী বলে তিনি জানান।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে হাসেম ফুডস লিমিটেডে আগুন লাগে। আগুনের ঘটনায় প্রথম দিন তিনজনের মৃত্যু হয়। আহত হন অর্ধশত শ্রমিক। ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের ১৮টি ইউনিট ২০ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পর ওই ভবনের চারতলা থেকে ২৬ নারীসহ ৪৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা ও গুরুতর আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ্‌।