নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলায় হেঁটে সোমেশ্বরী নদী পার হতে গিয়ে এক ব্যক্তি আজ রোববার ডুবে মারা গেছেন। বিকেলে তিপলি চরপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওই ব্যক্তি বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এবং সাঁতার জানতেন না বলে পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে।

মারা যাওয়া ব্যক্তি হলেন লিটন মিয়া (৩৭)। তিনি গাওকান্দিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ বিশ্বনাথপুর গ্রামের মৃত মোতালেব মিয়ার ছেলে।

বিজ্ঞাপন

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও থানা-পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লিটন বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ছিলেন। তিনি সাঁতারও জানতেন না। আজ বিকেলে তিনি কচুর লতি সংগ্রহ করতে তিপলি চরপাড়া এলাকায় যান। ফেরার পথে তিনি হেঁটে সোমেশ্বরী পার হচ্ছিলেন। একপর্যায়ে তিনি পানিতে তলিয়ে যেতে থাকেন। এ দৃশ্য দেখেন এক নারী। তাঁর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে যান। কিন্তু ততক্ষণে লিটন পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন। লোকজন প্রায় আধা ঘণ্টা পর তাঁকে উদ্ধার করেন।

দুর্গাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মীর মাহবুব বলেন, পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লিটন মিয়ার মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0