default-image

কনের বাড়ি পাঁচ কিলোমিটার দূরে। বিয়ে করতে যেতে স্থানীয় সাংসদকে নিয়ে হেলিকপ্টারে চড়ে বসেছেন বর। করোনাকালে ভিড় বাড়ানো যাবে না। বরযাত্রার পরিসর ‘ছোট’ করতে গিয়ে সঙ্গী হয়েছে ৮০টি মোটরসাইকেল ও ৩০টির বেশি গাড়ি।

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেনের বিয়েতে এ ঘটনা ঘটেছে। আড়াইহাজার পৌরসভার মুকুন্দি গ্রামের হেলালউদ্দিনের মেয়ে শাহীনুর আক্তারের সঙ্গে গতকাল মঙ্গলবার তাঁর বিয়ে হয়।

সাখাওয়াতের বাড়ি বিশনন্দী ইউনিয়নের কলাপাড়া গ্রামে। তাঁর বাবা আবুল হোসেন উপজেলার গোপালদী বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী। চাচা খোরশেদ আলম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

বিজ্ঞাপন

সাখাওয়াতের চাচাতো ভাই শারাজ আয়াত জানান, তাঁর ভাই সাখাওয়াতের ছেলেবেলার শখ হেলিকপ্টারে করে বিয়ে করতে যাওয়ার। খোরশেদ আলম এ কথা জানতে পেরে ভাতিজার শখ পূরণের ব্যবস্থা করেন। গতকাল দুপুরে বিশনন্দী মসজিদ মাঠ থেকে হেলিকপ্টারে চড়ে বসেন সাখাওয়াত। সঙ্গে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম। বিকেলে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে হেলিকপ্টারে চড়েই নববধূকে নিয়ে নিজের বাড়ি ফেরেন সাখাওয়াত।

শারাজ আরও জানান, করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মানতে গিয়ে বরযাত্রা ও বিয়ের আয়োজন সংকুচিত করতে হয়েছে। ছোট্ট পরিসরে বরযাত্রার আয়োজন করতে গিয়েও ৮০টির মতো মোটরসাইকেল ও ৩০-৩৫টি গাড়ির বহর গিয়েছে বরযাত্রায়। সোমবার রাতের গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তাঁরা গিয়েছিলেন ৫০ টি মোটরসাইকেল ভর্তি লোক।

উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রাজিবুল ইসলাম প্রথম আলোকে জানান, সাখাওয়াত হোসেন বিশনন্দী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে তিনি যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত আছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0