বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঢাকার মোহাম্মদপুর থেকে শনিবার দিনগত রাত ৩টা ৪০ মিনিটে যাত্রা শুরু করেন আল আমিন। পথে চার জায়গায় ৫-১০ মিনিট করে যাত্রাবিরতি করেন। ৬ ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে পৌনে ১০টার দিকে টাঙ্গাইল শহর বাইপাসের রাবনা মোড়ে পৌঁছান। পরে সেখান থেকে আরও এক ঘণ্টায় ২৭ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ভূঞাপুরে বাড়িতে যান।

বাড়ি ফেরার পথে রোববার সকালে আল আমিনের সঙ্গে কথা হয় টাঙ্গাইল শহর বাইপাস সড়কে। তিনি বলেন, ঈদে বাড়ি ফিরতে যানজটে অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এর আগেও একবার ঈদে সাইকেল নিয়ে বাড়ি এসেছিলেন। যানজটের দুর্ভোগ এড়িয়ে সাইকেল নিয়ে অনেক সহজে গন্তব্যে যাওয়া যায়। তাই এবারও সাইকেল নিয়ে বাড়ি আসার সিদ্ধান্ত নেন।

বিকেলে মুঠোফোনে আল আমিন বলেন, ‘সাইকেলে বাড়ি আসতে কোনো সমস্যা হয়নি। সাইকেল চালাতে খুব ভালো লাগে। সাইক্লিং স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। তা ছাড়া এটি পরিবেশবান্ধব যান।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন