বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, জেলায় প্রথম করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয় গত বছরের ১১ এপ্রিল। ওই বছর ৮ হাজার ১৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১ হাজার ৪৮১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। করোনা শনাক্তের হার ছিল ১৮ দশমিক ১৫। একই বছরের করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছিল ২৯ জনের। চলতি বছরের শুরুর দিক করোনা নিয়ন্ত্রণে থাকলেও ২৮ মের পর থেকে আশঙ্কাজনক হারে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যায়। চলতি বছরে ২০ হাজার ৬৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৬ হাজার ৪৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ২৯। চলতি বছর করোনা সংক্রমণে মারা গেছেন ২০৮ জন। এ পর্যন্ত ২৮ হাজার ৮০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭ হাজার ৫২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ১৪। এ পর্যন্ত করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ২৩৭ জনের।

জেলা সিভিল সার্জন মাহফুজার রহমান সরকার বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর জেলায় করোনা শনাক্তবিহীন একটা দিন পেলাম। ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত কোনো রোগী পাওয়া যায়নি বা করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি। এমন অবস্থা যদি টানা দুই থেকে তিন সপ্তাহ ধরে রাখা যায়, তবেই বলা যাবে আমরা করোনা মোকাবিলায় সক্ষম হয়েছি। তবে এখনই স্বস্তির কিছু নেই। শনাক্ত কমে গেলেও সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন