default-image

বিএনপি-জামায়াত রেলকে একটা পঙ্গু প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছে বলে অভিযোগ করেছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, ‘দেশ স্বাধীনের পর আমাদের রেলের জনবল ছিল ৬৮ হাজার আর গত ৫০ বছর পর এসে আমাদের লোকবল হয়েছে ২৫ হাজার। আমরা লোকমোটিভের অভাবে ট্রেন চালাতে পারছি না।’

আজ শুক্রবার সকালে রাজশাহীর রেলভবন ও রেলস্টেশনের বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বলেন, ‘রেলের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। মাঝে লোকবল নিয়োগের জন্য আমাদের কোনো নীতিমালা ছিল না। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ হস্তক্ষেপে সেটা আমরা করে ফেলেছি। কাজেই আমরা আশা করছি আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ১০ থেকে ১৫ হাজার লোক রিক্রুট (নিয়োগ) করব।’

রাজশাহী থেকে কলকাতা সরাসরি যাত্রীবাহী ট্রেন চালুর ব্যাপারে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম বলেন, ‘আপনারা যে রাজশাহী থেকে কলকাতা সরাসরি যাত্রীবাহী ট্রেন চান, সেটি শোনার জন্যই এখানে এসেছি। আমরা দাবির কথা শুনছি। সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ইতিমধ্যে ডিও প্রদান করেছেন, সেগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে।’

বিজ্ঞাপন
default-image

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনকে জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামানের নামে নামকরণ করার দাবির বিষয়ে রেলমন্ত্রী বলেন, ‘শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামান শুধু আমাদের জাতীয় নেতাই নন, তিনি আমাদের স্বাধীনতার ইতিহাসের অংশ। এ ব্যাপারে আমাকে ফরমালি প্রস্তাব দেওয়া হলে আমরা অনুমোদন দেব।’

শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টায় রাজশাহী রেলভবনে মন্ত্রী নূরুল ইসলামকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, রেলওয়ের কর্মকর্তা ও রেল শ্রমিক লীগের নেতারা। পরে মন্ত্রী রেলের বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেন।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, রাজশাহীর সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ আদিবা আঞ্জুম মিতা, বাংলাদেশ রেলওয়ের (পশ্চিমাঞ্চল) মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ, রাজশাহী রেলওয়ে শ্রমিক লীগ ওপেন লাইন শাখার সভাপতি মো. আকতার আলী ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান।

বিকেলে মন্ত্রী রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন পরিদর্শনে যান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন