ট্রলারের মালিক মো. হারুন মুন্সী বলেন, জামিলা নামের মাছ ধরার ট্রলারে করে ১০ জেলে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে যান। ৪ ফেব্রুয়ারি রাতে বঙ্গোপসাগরের অফিসকিল্লা এলাকায় অবস্থান করার সময় আকস্মিক ঘূর্ণিঝড়ে ট্রলারটি উল্টে যায়। ঝড় থামার পর অন্য ট্রলার এসে সাত জেলেকে উদ্ধার করে। তবে জেলে ইসমাইল, আলমগীর সরদার ও বাচ্চু মোল্লা নিখোঁজ হন। পরে ইসমাইল ও আলমগীরের লাশ সাগর থেকে উদ্ধার করা হলেও বাচ্চু মোল্লা নিখোঁজ ছিলেন। সম্প্রতি উল্টে যাওয়া ট্রলারটি মঠবাড়িয়া উপজেলার জানখালী খালের মোহনায় নিয়ে যাওয়া হয়। গতকাল দুপুরে ট্রলারটি পরিষ্কার করার সময় বাচ্চু মোল্লার অর্ধগলিত লাশ পাওয়া যায়।

মঠবাড়িয়া উপজেলার তুষখালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান হাওলাদার নিখোঁজ জেলের লাশ পাওয়ার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নূরুল ইসলাম বলেন, ট্রলারডুবিতে মারা যাওয়া বাচ্চু মোল্লার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন