default-image

চট্টগ্রামের বাঁশখালীর গণ্ডামারায় নির্মাণাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে নিহত প্রত্যেক শ্রমিকের পরিবারকে তিন কোটি টাকা করে এবং আহতদের প্রত্যেককে দুই কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) পক্ষে আজ রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দুই সচিবসহ সাত সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শকসহ ১৬ কর্মকর্তা বরাবর ই–মেইলের মাধ্যমে আইনজীবী সৈয়দা নাসরিন ওই নোটিশ পাঠান। নোটিশে ওই হতাহতের ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলাসহ আইনগত ব্যবস্থা নিতে এবং নিহত–আহত শ্রমিকদের পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

পরে আইনজীবী সৈয়দা নাসরিন প্রথম আলোকে বলেন, সাত দিনের মধ্যে নিহত–আহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ দিতে, ওই ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করতে এবং ভুক্তভোগী পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অনুরোধ করা হয়েছে। তা না হলে রিট দায়েরসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে নোটিশে বলা হয়েছে।    

গতকাল শনিবার বাঁশখালীর গণ্ডামারায় বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘর্ষের সময় পুলিশের গুলিতে পাঁচ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৩ পুলিশসহ অন্তত ৩০ জন। আহত শ্রমিকেরা পুলিশকে দায়ী করেছেন। পুলিশের অভিযোগ, বিনা উসকানিতে ইটপাটকেল ছোড়ায় ঘটনার সূত্রপাত হয়।

শিল্প গ্রুপ এস আলমের মালিকানায় এসএস পাওয়ার প্ল্যান্ট নামে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মিত হচ্ছে। চীনা প্রতিষ্ঠান সেফকো থ্রি পাওয়ার কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড এখানে অর্থায়ন করেছে। এখানে প্রায় ছয় হাজার শ্রমিক কাজ করেন। সংঘর্ষের ওই ঘটনায় শনিবার রাতে বাঁশখালী থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। এতে অজ্ঞাতপরিচয় সাড়ে তিন হাজারজনকে আসামি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন