বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ও রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া নৌপথে ২০টি ফেরি বরাদ্দ থাকলেও বর্তমানে ১৮টি ফেরি চলছে। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিকল হওয়ায় দুটি ফেরি পাটুরিয়ার ভাসমান কারখানায় মেরামত করা হচ্ছে। স্বাভাবিক অবস্থায় এই নৌপথ পাড়ি দিতে ফেরিগুলোকে প্রায় আধা ঘণ্টা সময় লাগলেও নদীতে স্রোতের কারণে সময় কিছুটা বেশি লাগছে।

আজ সকালে সরেজমিন দেখা গেছে, যাত্রীবাহী বাসগুলো ঘাট এলাকা থেকে পাটুরিয়া-উথলী সংযোগ সড়কের আরসিএল মোড় পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার পর্যন্ত দীর্ঘ সারিতে আটকা। পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ঘাট এলাকায় শতাধিক ব্যক্তিগত গাড়িও নদী পারের অপেক্ষায় আছে। স্থানীয় দুটি ট্রাক টার্মিনালে চার শতাধিক পণ্যবাহী যান নদী পারের অপেক্ষায়।

পাটুরিয়ার জিরোপয়েন্ট এলাকায় গোল্ডেন লাইন পরিবহনের বাসের যাত্রী কবির হোসেনকে (৫০) রাস্তায় পায়চারি করতে দেখা যায়। এ সময় কথা হলে সরকারি চাকরিজীবী এ যাত্রী বলেন, দুই দিনের ছুটির সঙ্গে আরও এক দিনের ছুটি নিয়ে ঢাকার মিরপুর থেকে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় গ্রামের বাড়ি যাচ্ছেন। রাস্তায় কোনো ভোগান্তি না হলেও ঘাট এলাকায় দুই ঘণ্টা ধরে নদী পারের অপেক্ষায় রয়েছেন।

পরিবহনশ্রমিকদের ভোগান্তি আরও বেশি। নারায়ণগঞ্জ থেকে সয়াবিন তেল নিয়ে যশোর যাবেন ট্রাকচালক আবদুল করিম (৫৫)। ট্রাক টার্মিনালে থাকা করিম বলেন, গত বুধবার ভোরে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় আসার পর থেকে নদী পারের অপেক্ষায় আছেন। আজ দুপুরেও তিনি ফেরির টিকিট পাননি। পকেটের টাকা খরচ করে নিজে ও তাঁর সহকারীকে (হেলপার) হোটেলে খাবার খেতে হচ্ছে।

ঘাট এলাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) রিজানুর রহমান বলেন, সকালের দিকে যাত্রীবাহী বাসের চাপ কিছুটা বেশি ছিল। তবে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে আগে পারাপার করায় দুপুরের দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসে। ব্যক্তিগত ছোট গাড়ির চাপও দুপুরে কমে আসে। তবে ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, পিকআপ ভ্যানসহ পণ্য ও মালবাহী চার শতাধিক গাড়ি টার্মিনালে আটকা পড়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন