default-image

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা সদরের বাওয়ার কুমারজানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তানিয়া রহমান ছুটি নিয়েছিলেন তিন মাসের। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ছুটি নিয়ে স্বামীর সঙ্গে পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। দেড় বছর পরও তিনি দেশে ফেরেননি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালের ৩ জুলাই থেকে একই বছরের ২ অক্টোবর পর্যন্ত ৩ মাসের ছুটি নেন তানিয়া রহমান। ছুটি শুরুর আগের দিন ২ জুলাই তিনি পরিবারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে যান। এরপর থেকে বিদ্যালয়ের সঙ্গে তাঁর কোনো যোগাযোগ নেই। দেড় বছর ধরে তিনি বিদেশে অবস্থান করছেন। এতে করোনার কারণে বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকলেও ছুটির আগে সেখানে পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বিদ্যালয়ে অনুপস্থিতির কারণ জানাতে উপজেলা সদরের বাইমহাটীতে তানিয়া রহমানের গ্রামের বাড়িতে চিঠি পাঠিয়েছেন। তবে কেউ সেই চিঠি গ্রহণ করেননি। গত বছরের ২৩ জুলাই তাঁকে সর্বশেষ চিঠি পাঠানো হয়। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলুয়ারা বেগমের মুঠোফোনে কল করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সভাপতি মহিদুর মিয়া বলেন, তিনি দায়িত্ব গ্রহণের আগেই তানিয়া রহমান ছুটিতে যান। বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে প্রায় ১৬০ জন শিক্ষার্থী ও পাঁচজন শিক্ষক আছেন। একজন শিক্ষকের পদ খালি রয়েছে। ছুটি নেওয়ার পর তাঁর পরিবর্তে বিদ্যালয়টিতে কোনো শিক্ষক দেওয়া হয়নি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন বলেন, ছুটি নিয়ে বিদেশে যাওয়ার পর থেকেই তানিয়া রহমানের বেতন দেওয়া বন্ধ আছে। তাঁর অবস্থান সম্পর্কে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন