বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে চৌমুহনী পৌরসভার উত্তর গনিপুর গ্রামের মোহাম্মদ মোরশেদ (৪৫) গৃহস্থালির কাজে ব্যবহৃত দা ধার দেওয়ার জন্য চৌমুহনী বাজারে যান। বেলা একটার দিকে ব্যাগে দা নিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য একটি রিকশা ভাড়া করেন। রিকশাচালক বাড়ির সামনে নামিয়ে দিয়ে পাঁচ টাকা ভাড়া বেশি চান। এতে দুজনের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে ব্যাগ থেকে দা বের করে রিকশাচালক মোহাম্মদ হোসেনের ঘাড়ে কোপ দেন মোরশেদ। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে মোরশেদ দৌড়ে পালিয়ে যান। আশপাশের লোকজন এসে গুরুতর আহত অবস্থায় মোহাম্মদ হোসেনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে বেলা ২টার দিকে নোয়াখালীর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালটির আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম প্রথম আলোকে বলেন, ঘাড়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মৃত অবস্থায় মোহাম্মদ হোসেন নামের এক ব্যক্তিকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। পরে তাঁর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকদার বলেন, রিকশাচালক হত্যার ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিকে আটকে পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে। এ ঘটনায় পরিবারের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন