বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিটি করপোরেশনের বর্তমান পরিষদের এটি শেষ বাজেট। ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

বাজেট ঘোষণার সময় সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল আমিন, প্যানেল মেয়র আফরোজা হাসানসহ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরসহ গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র আইভী বলেন, ঘোষিত বাজেটে অবকাঠামোগত উন্নয়ন—রাস্তা, নালা, সেতু, কালভার্ট নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণ, বৃক্ষরোপণ, দারিদ্র্য বিমোচন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, জরুরি ত্রাণ, তথ্যপ্রযুক্তি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যানজট নিরসন, জলাবদ্ধতা দূরীকরণ, মশকনিধন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন, খেলাধুলার মানোন্নয়নে মাঠ নির্মাণ, স্ট্রিট লাইট স্থাপনসহ সুপেয় পানি সরবরাহ খাতে বিশেষ বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

এডিবি, সিজিপি, এমজিএসপি ও এডিপি প্রকল্প সহায়তার মাধ্যমে অবকাঠামো নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ সংরক্ষণ ও সিটি করপোরেশনের আওতাধীন খালগুলো খননের মাধ্যমে জলাধার সংরক্ষণে বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

মেয়র আইভী বলেন, করোনা মোকাবিলায় গত বছরের ন্যায় এবারও ৩টি অঞ্চলে ২০ জন চিকিৎসকের সমন্বয়ে টেলিমেডিসিন সেবা, করোনার নমুনা সংগ্রহসহ টিকাদান কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

মেয়র আইভী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্মাণসহ অন্যান্য উন্নয়নমূলক কাজ বাস্তবায়নে বাজেটে সুযোগ রাখা হয়েছে। জিমখানা লেক উন্নয়ন ও ওয়াকওয়ে নির্মাণের কাজ চলমান। শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ধলেশ্বরী নদী পর্যন্ত বাবুরাইল খাল পুনঃখনন, সৌন্দর্য বৃদ্ধিকরণ, আলোকিতকরণ ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ প্রকল্পের কাজ চলমান। সিদ্ধিরগঞ্জে ডিএনডি ক্যানেলের পুনঃখনন, সৌন্দর্য বৃদ্ধিকরণ, জলাধার সংরক্ষণ, আলোকিতকরণ, নালাসহ ওয়াকওয়ে নির্মাণ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। শহরের ৫ নম্বর গুদারাঘাটের কাছে শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর দিয়ে কদমরসুল সেতু নির্মাণে ভূমি অধিগ্রহণে রিসেটেলমেন্ট প্ল্যান প্রস্তুতকরণের কাজ চলছে। অচিরেই প্রকল্পের দরপত্র আহ্বান করা হবে। এ ছাড়া রক্ষণাবেক্ষণ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

মেয়র আইভী বলেন, ‘আমি দলের কর্মী। আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন চাইব। দল মনোনয়ন দিলে নির্বাচন করব।’ তিনি বলেন, ‘আমার দৃঢ় বিশ্বাস, আমি আপনাদের সেবা করার সুযোগ পাব।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন