বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরে ওই ৪ বস্তা থেকে ৭ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি করছে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে ইয়াবার চালানটি জব্দ করা হয়। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

আজ শনিবার বিকেলে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদর দপ্তর গোয়েন্দা পরিদপ্তর শাখার (মিডিয়া কর্মকর্তা) লেফটেন্যান্ট (বিএন) খন্দকার মুনিফ তকি স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোস্টগার্ড সদস্যরা জানতে পারেন মিয়ানমার থেকে বড় ধরনের মাদকের চালান বাংলাদেশে আসছে। এরপর বাংলাদেশ কোস্টগার্ড দক্ষিণ-পূর্ব জোনের বিসিজি টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার এম নাঈম উল হকের নেতৃত্বে একটি বিশেষ টহল দল সেন্টমার্টিনের ছেঁড়াদিয়াসংলগ্ন সাগরে অভিযান চালায়।

বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদর দপ্তর গোয়েন্দা পরিদপ্তর শাখার (মিডিয়া কর্মকর্তা) লেফটেন্যান্ট (বিএন) খন্দকার মুনিফ তকি জানান, উদ্ধার করা ইয়াবাগুলো টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন