বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিলচাপড়ি গ্রামের এক তরুণের (২০) সঙ্গে প্রায় দুই বছর আগে ওই মাদ্রাসার দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওই তরুণ ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। সেখান থেকে ছুটি নিয়ে রোববার সকালের দিকে বাড়িতে আসেন। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে ওই মাদ্রাসায় যান।

পুলিশ জানায়, একপর্যায়ে তাঁরা দুজন মাদ্রাসার শৌচাগারের ভেতর প্রবেশ করে গল্প করছিলেন। মাদ্রাসাটির কোনো সীমানা প্রাচীর নেই। এ সময় স্থানীয় লোকজন বাইরে থেকে শৌচাগারের তালা লাগিয়ে দেন। অবস্থা বেগতিক দেখে ওই তরুণ ৯৯৯-এ ফোন করেন। খবর পেয়ে ধুনট থানা–পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই ঘণ্টা পর দুজনকে শৌচাগার থেকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।

ধুনট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমীন খান বলেন, ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে প্রেমিক যুগলকে মাদ্রাসার শৌচাগার থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। পরে দুজনের অভিভাবকদের থানায় ডাকা হয়। সেখানে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আবদুল্লাহেল কাফীর উপস্থিতিতে দুজনকে নিজ নিজ অভিভাবকদের জিম্মায় দেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন