default-image

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে পুলিশের সহযোগিতা চাওয়ার পর সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার যুবক মামলা করেছেন। সন্ত্রাসীদের কাছে তথ্য জানিয়ে দেওয়ার অভিযোগে ভেড়ামারা থানার কুচিয়ামোড়া পুলিশ ক্যাম্পের উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেনকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

গত শুক্রবার সকালে ভেড়ামারা উপজেলার জুনিয়াদহ ইউনিয়নের ফয়জুল্লাপুর গ্রামে আসাদুল হক (২৮) নামের এক যুবকের ওপর হামলা চালিয়ে জখম করা হয়। আসাদুলের অভিযোগ, শুক্রবার সকাল নয়টার দিকে জুনিয়াদহ এলাকায় তাঁর বাড়ির পাশে পদ্মা নদীতে হঠাৎ তিনটি গুলির শব্দ শুনতে পান। এরপর তিনি দ্রুত জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে বিষয়টি জানান। তবে এ ঘটনায় ব্যবস্থা না নিয়ে কুচিয়ামোড়া পুলিশ ক্যাম্পের এসআই অভিযোগ করার তথ্য সন্ত্রাসীদের জানিয়ে দেন। পরে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে আসাদুলকে কুপিয়ে জখম করে।

এ ঘটনায় গত শনিবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টায় ভেড়ামারা থানায় ভুক্তভোগী আসাদুল হক (২৮) বাদী হয়ে মামলা করেন। রোববার সকালে এসআই জাহাঙ্গীর হোসেনকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। তাঁকে প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মোস্তাফিজুর রহমান।

বিজ্ঞাপন

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজালাল প্রথম আলোকে বলেন, মামলায় ছয়জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা আসামি আরও দু–একজন। হত্যার উদ্দেশ্যে জখমের অভিযোগ আনা হয়েছে। রাতেই ব্যাপক অভিযান চালানো হয়েছে। তবে কোনো আসামি গ্রেপ্তার নেই।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভেড়ামারা সার্কেল) ইয়াছির আরাফাত প্রথম আলোকে বলেন, রোববার ঘটনাস্থলে কয়েকজন কর্মকর্তা নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানকার পরিস্থিতি সম্পর্কে ধারণা নেওয়া হয়েছে। পুলিশের একাধিক দল মাঠে কাজ করছে। আসামিরা খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় চলে আসবে।

ঘটনাটির তদন্তের বিষয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, ঘটনাস্থলে বালুর ব্যবসা নিয়ে দুটি পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে। এসব নিয়েই তাদের মধ্যে মাঝেমধ্যে ঝামেলা সৃষ্টি হয়। ঘটনার দিন চাঁদাবাজি নিয়ে মারামারি হয়েছিল। সেখানে কোনো গুলির ঘটনা ঘটেনি। দুটি পক্ষ বাঁশ, লাঠি ও হাঁসুয়া নিয়ে সংঘর্ষ বাধায়। পুলিশ যাওয়ায় তেমন কোনো কিছু হয়নি। এসআইয়ের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগসহ সব বিষয়ই তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন