default-image

একদিকে বয়সের ভার, অন্যদিকে পায়ে গুরুতর জখম। হাতিটি তাই পথ চলতে গিয়ে আটকা পড়েছিল কাদায়। প্রায় এক দিন সেখানেই পড়ে ছিল হাতিটি। পরে গতকাল শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কয়েক ঘণ্টার প্রচেষ্টায় হাতিটিকে কাদা থেকে তুলে আনা হয়। এরপর তাঁবু টানিয়ে সেখানেই চলছে হাতিটির চিকিৎসা। একই সঙ্গে চলছে হাতিটিকে খাবার খাওয়ানোর প্রচেষ্টাও।

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার চুনতির নারিশ্চা এলাকায় গত শুক্রবার আটকা পড়ে বয়স্ক হাতিটি। এরপর স্থানীয় লোকজন জনপ্রতিনিধিদের খবর দেন। জনপ্রতিনিধিরা বন বিভাগসহ প্রশাসনের কাছে বিষয়টি জানান। তবে বৃষ্টি ও পাশের পাহাড়ে হাতির দল থাকায় ওই দিন উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। গতকাল বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের চুনতি কার্যালয়, ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের চিকিৎসক দল, বন বিভাগের পদুয়া ও চুনতি রেঞ্জ কার্যালয়ের লোকজনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা যৌথভাবে হাতিটিকে কাদা থেকে তুলে আনেন।

উদ্ধার হওয়া হাতিটির বাঁ পায়ে পচন ধরেছে বলে জানান কক্সবাজারের চকরিয়ার ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের সহকারী ভেটেরিনারি সার্জন মো. মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সম্ভবত মাস তিনেক আগে হাতিটি কাটা বাঁশের কঞ্চিতে আঘাত পেয়েছিল। পরে ওই ক্ষতস্থানে পচন ধরেছে। ফলে হাতিটি স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারে না। এতে খাবারদাবার সংগ্রহ করাও হাতিটির জন্য দুঃসাধ্য হয়ে ওঠে। স্বাভাবিকভাবে খেতে না পারায় হাতিটি দুর্বল হয়ে পড়েছিল। এ জন্য হাতিটি কাদা থেকে উঠতে পারেনি।

হাতিটিকে উদ্ধার করার পর সুস্থ করার জন্য সব ধরনের চিকিৎসা চলছে বলে জানান মো. মোস্তাফিজুর রহমান। এ জন্য চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গেও সমন্বয় করা হচ্ছে।

প্রায় ১৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে চুনতি অভয়ারণ্যের অবস্থান। এই অভয়ারণ্যসহ আশপাশের এলাকায় ৯-১০টি হাতির পাল দেখা যায়। প্রতি পালে অন্তত পাঁচটি করে হাতি থাকে। অর্থাৎ সব মিলিয়ে এসব এলাকায় প্রায় ৫০টি হাতি রয়েছে বলে জানান বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের চুনতি কার্যালয়ের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মনজুরুল আলম।

রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মনজুরুল আলম প্রথম আলোকে বলেন, গত শুক্রবার রাতেই বন্য হাতিটি কাদায় আটকে থাকার খবরটি পান। তবে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ও পাশের পাহাড়ে হাতির দল থাকায় রাতে উদ্ধারকাজ করা সম্ভব হয়নি। উদ্ধারের পর চিকিৎসক দল হাতিটিকে চিকিৎসা দেওয়ার পাশাপাশি খাবার খাওয়ানোরও চেষ্টা করছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল মান্নান সিকদার প্রথম আলোকে বলেন, কাদায় হাতি আটকে আছে, এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে দলে দলে লোকজন হাতিটিকে দেখতে আসেন। বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গেই বন বিভাগসহ প্রশাসনের কাছে খবর পাঠান।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন