আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তা আরও ঘনীভূত হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। তবে তা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে কি না, তা এখনো নিশ্চিত নয়। বঙ্গোপসাগরে আবহাওয়ার ওই বিশেষ অবস্থার কারণে আকাশ থেকে মেঘ সরে যাচ্ছে। এর ফলে সূর্যরশ্মি বাধাহীনভাবে বাংলাদেশ ভূখণ্ডে পড়বে। এতে গরম বাড়তে পারে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, আগামী কয়েক দিন ধারাবাহিকভাবে মেঘ কমে রোদের তীব্রতা বাড়তে পারে। যে কারণে গরম বাড়তে পারে। আর বঙ্গোপসাগরে আগামীকালের মধ্যে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তবে তা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে কি হবে না, তা এখনই নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, তিন দিন ধরে ধারাবাহিকভাবে দেশের বেশির ভাগ এলাকার তাপমাত্রা কমেছে। এক সপ্তাহ আগেও দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে ছিল। আজ বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল পটুয়াখালীর খেপুপাড়ায় ৩৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গতকাল রাজধানীসহ দেশের বেশির ভাগ এলাকার আকাশে মেঘ ছিল। বৃষ্টিও ঝরেছে দেশের অনেক এলাকায়। সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে মাদারীপুরে ৬৫ মিলিমিটার। এ ছাড়া কুমিল্লায় ৪০, চাঁদপুরে ৩২ মিলিমিটার বৃষ্টি ঝরেছে। রাজধানীতে এক মিলিমিটার বৃষ্টি ঝরেছে। দেশের আরও ১০টি জেলায় কমবেশি বৃষ্টি পড়েছে।

পরিবেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন