default-image

উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে। এটি আজ বুধবার সন্ধ্যা নাগাদ দেশের আরও অনেক এলাকায় ছড়িয়ে পড়তে পারে। শৈত্যপ্রবাহটি আরও তীব্রতা পেয়ে, অর্থাৎ তাপমাত্রা আরও কমে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহে পরিণত হতে পারে। আরও দুই থেকে তিন দিন এটি স্থায়ী হতে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

আবহাওয়াবিদেরা বলছেন, কালকের মধ্যে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছয় থেকে আট ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে চলে আসতে পারে। রাজধানীসহ দেশের বেশির ভাগ স্থানে তাপমাত্রা দুই থেকে তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস কমে আসতে পারে। এরই মধ্যে গতকাল মঙ্গলবারের তুলনায় আজ উত্তরাঞ্চলসহ দেশের অধিকাংশ স্থানের তাপমাত্রা তিন থেকে পাঁচ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমে গেছে।

বিজ্ঞাপন

এ ব্যাপারে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আবদুল মান্নান প্রথম আলোকে বলেন, গত ১০ থেকে ১২ দিন বাংলাদেশের ওপর দিয়ে উষ্ণ পশ্চিমা লঘুচাপ বয়ে যাচ্ছিল, যা গতকাল বিকেল থেকে সরে গেছে। আর সেই স্থানটি দখল করে নিয়েছে হিমালয় অঞ্চল দিয়ে বয়ে আসা শীতল বায়ুপ্রবাহ। ফলে শীত বেড়ে গেছে। এটি দু–তিন দিন স্থায়ী হতে পারে। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নেমে আসতে পারে।

default-image

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল দিয়ে বয়ে যাওয়া মৃদু শৈত্যপ্রবাহটি আজও একই এলাকা দিয়ে বয়ে যেতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা আরও কমতে পারে। আজ আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, শৈত্যপ্রবাহটি পাবনা, নওগাঁ, দিনাজপুর, সৈয়দপুর ও কুড়িগ্রাম অঞ্চলের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।


দেশে আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নওগাঁর বদলগাছীতে ৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বোচ্চ কক্সবাজারে ৩০ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। আজ ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন