default-image

কুড়িগ্রামের রাজারহাট থেকে সিলেটের শ্রীমঙ্গল। এরপর চুয়াডাঙ্গা। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড এখন দক্ষিণ-পশ্চিমের সীমান্তবর্তী এই শহরে। আজ মঙ্গলবার এখানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দেশের অন্যান্য এলাকায় শীতের তীব্রতায় তেমন বিশেষ হেরফের হয়নি। শৈত্যপ্রবাহ চলছেই। তবে রাতের তাপমাত্রা আর কমবে না, বরং একটু করে বাড়তে থাকবে বলেই আবহাওয়ার পূর্বাভাস।

একদিকে শৈত্যপ্রবাহ, অন্যদিকে ঘন কুয়াশায় আকাশ ঢাকা। অনেক এলাকাতেই সূর্য মধ্য-আকাশে উঠে গেলেও রোদের কিরণ কুয়াশার পর্দা সরিয়ে শুকনো ধুলার ধরণিতে এসে পৌঁছায় না। তার ওপর বয়ে যাচ্ছে কনকনে উত্তুরে হাওয়া। এই ত্রিমুখী পরাক্রমে জনজীবনে কাঁপুনি উঠেছে। বহু এলাকায় মন্থর হয়ে গেছে প্রাত্যহিক জীবনযাত্রার গতিছন্দ। তবে রাজধানীতে শীতের প্রভাব কমেছে।

গত সপ্তাহ থেকে চট্টগ্রাম ও সিলেটের কিছু অঞ্চল ছাড়া প্রায় সারা দেশের ওপর দিয়েই তীব্র ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। আবহাওয়া বিভাগের আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, চলতি মৌসুমে এটাই সবচেয়ে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলসহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের প্রভাবে এই শৈত্যপ্রবাহ দেখা দিয়েছে। গত ২৭ জানুয়ারি থেকে দেশের কয়েকটি এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়। এরপর ২৯ তারিখ পর্যন্ত প্রতিদিনই এর তীব্রতা ও পরিধি বাড়তে থাকে। ৩০ জানুয়ারিতে এসে তাপমাত্রা কিছুটা বেড়েছিল। আবার এক দিন পরই ৩১ জানুয়ারি থেকে তাপমাত্রা কমে শৈত্যপ্রবাহটি আরও তীব্র হয়ে ওঠে। সাধারণত কোনো এলাকার তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গেলে সেখানে শৈত্যপ্রবাহ চলছে বলে ধরা হয়। তবে আজ আবার সারা দেশেই তাপমাত্রা গতকালের চেয়ে গড়ে ১ থেকে ৩ ডিগ্রি পর্যন্ত বেড়েছে। কাল বুধবার থেকে শৈত্যপ্রবাহের তীব্রতা আরও কমতে থাকবে। ক্রমান্বয়ে একেক এলাকা শৈত্যপ্রবাহের আওতা থেকে বেরিয়ে আসবে।

বিজ্ঞাপন

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আজ বলা হয়েছে, দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা খুলনার চুয়াডাঙ্গায় ৬ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে সেখানে গতকালের চেয়ে তাপমাত্রা দশমিক ৬ ডিগ্রি বেড়েছে। গতকাল সেখানে তাপমাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি। আর দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গলে ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি। তার আগে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার এই রেকর্ড ছিল কুড়িগ্রামের রাজারহাটে। আজ দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড হয়েছে টেকনাফে ২৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি।

ঢাকাতেও আজ তাপমাত্রা বেড়ে শৈত্যপ্রবাহের আওতামুক্ত হয়েছে। এখানে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা আজ ২২ দশমিক ৪ ও সর্বনিম্ন ১১ দশমিক ৭। গতকাল সর্বোচ্চ ছিল ২২ দশমিক ১ ডিগ্রি ও সর্বনিম্ন ১১ দশমিক ৭ ডিগ্রি। কাল বুধবার সারা দেশেই তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে।

আজ রাজশাহী, রংপুর, বরিশাল বিভাগসহ টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, ময়মনসিংহ, সন্দ্বীপ, সীতাকুণ্ড, রাঙামাটি, কুমিল্লা, হাতিয়া, শ্রীমঙ্গল, সাতক্ষীরা, যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলের কিছু কিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। কাল বুধবারের মধ্যে অনেক এলাকাতেই শীতের তীব্রতা কমে আসবে।

আমাদের চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আজ এখানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড হলেও শীতের তীব্রতা ততটা অনুভূত হচ্ছে না। সকাল আটটার দিকেই আকাশ থেকে কুয়াশা ফিকে হয়ে গেছে। ঝলমলে রোদ এসে উষ্ণ করে তুলেছে পরিবেশ। মিঠে রোদ গায়ে মেখে লোকজন কাজে বেরিয়ে পড়েছেন। অনেককেই বাড়ির উঠানে বা খোলা জায়গায় বসে রোদ পোহাতে দেখা যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
পরিবেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন