বিজ্ঞাপন

চিড়িয়াখানার দায়িত্বে থাকা বন বিভাগের রেঞ্জার মো. হাসমত আলী বলেন, চিত্রা হরিণের খাঁচায় বাচ্চাপ্রসব হয়। এরপর প্রাথমিক পরিচর্যায় বাচ্চাটি সুস্থ বলে জানিয়েছেন প্রাণী চিকিৎকেরা। গতকাল সকালে ও দুপুরে আরও দুই দফা চিকিৎসকেরা বাচ্চাটি প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করে দেখেছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, বাচ্চাটির কোনো সমস্যা নেই। হরিণের পালেই আছে বাচ্চাটি।

চিড়িয়াখানার দায়িত্বে থাকা বনকর্মীরা জানান, হরিণের জন্য সংরক্ষিত স্থানগুলোর দিকে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। বাচ্চা হরিণ যাতে ছোটাছুটি করে সংরক্ষিত এলাকার বাইরে গিয়ে কোনো বিপদে না পড়ে, এ জন্য সীমানাপ্রাচীরও সংস্কার করা হচ্ছে।

পরিবেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন