default-image

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলায় প্রায় আড়াই লাখ লোকের বাস। এ সংখ্যা ধরে মাথাপিছু একটি করে গাছ লাগানো হয়েছে। এ কাজ করেছে উপজেলা প্রশাসন ‘সবাই মিলে লাগাই বৃক্ষ, এক দিনেই আড়াই লক্ষ’ স্লোগান নিয়ে টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে আজ সোমবার আড়াই লাখ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত হলো। আবহাওয়া ও জলবায়ুর ভারসাম্য রক্ষায় পুরো দেলদুয়ার উপজেলাকে সবুজের চাদরে ঢাকার লক্ষ্যে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়।
আজ বেলা ১১টায় উপজেলার পাথরাইলে আইডিয়াল কিন্ডারগার্টেন স্কুলে একযোগে আড়াই লাখ গাছের চারা লাগানোর আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।
একটি করে গাছ লাগিয়ে সবুজ দেলদুয়ার গড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল এক মাস আগে।
দেলদুয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহাদত হোসেন কবির বলেন, বর্তমানে জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বেড়ে যাচ্ছে। অনিয়মিত ঋতু পরিবর্তন হচ্ছে, ঋতুর বৈশিষ্ট্যের পরিবর্তন হচ্ছে। এই প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও জলবায়ু স্বাভাবিক রাখতে বেশি গাছ থাকা প্রয়োজন। অন্যদিকে সম্প্রতি বেশি হারে বজ্রপাত হচ্ছে। তিনি বলেন, বজ্রপাতরোধে তালবীজ বিশেষ ভূমিকা রাখে। ফলে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী তালবীজ রোপণসহ অন্যান্য গাছ মিলিয়ে উপজেলার প্রত্যেককে অন্তত একটি করে গাছ লাগিয়ে উপজেলায় আড়াই লাখ গাছের চারা রোপণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। রংপুরের তারাগঞ্জ ও ময়মনসিংহের ত্রিশালে বৃক্ষরোপণের কর্মসূচি তাঁদের এই কর্মসূচি হাতে নিতে প্রেরণা জুগিয়েছে।
উপজেলা পরিষদ সূত্র জানায়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের সক্রিয় ব্যক্তিরা বৃক্ষরোপণ অভিযানকে সফল করতে যথেষ্ট প্রচারণা করেছেন। এ ছাড়া জনপ্রতিনিধি, স্কুল, কলেজ, হাট, বাজার—এসব জায়গায় লিফলেট বিতরণ ও মাইকযোগে প্রচারণা চালানো হয়েছে। এ ছাড়া স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে মতবিনিময় করা হয়েছে।
বিভিন্ন সড়কের পাশে ফলদ উদ্ভিদের সঙ্গে শোভাবর্ধনকারী গাছ নিম, জারুল, সোনালু, কৃষ্ণচূড়া, শিমুল ও মহুয়া গাছের চারা সরকারিভাবে লাগানো হয়েছে। এ ছাড়া নিজ নিজ বাড়িতে ব্যক্তি উদ্যোগে ইচ্ছেমতো জায়গায় পছন্দমতো উদ্ভিদের চারা রোপণ করেছে সাধারণ মানুষ।
দেলদুয়ারের পাথরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হানিফুজ্জামান লিটন বলেন, ‘চারাগুলো ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে বিতরণ করা হয়েছে। অন্যদের উৎসাহিত করতে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে মতবিনিময় করে গাছ লাগানো নিশ্চিত করেছি।’
পাথরাইল ইমপ্রুভ চাইল্ড কেয়ার স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. কামরুল ইসলাম বলেন, ‘এর আগে বজ্রপাত রোধে আমরা ১০ হাজার তালবীজ বিতরণ করেছি। উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে আরও এক হাজার বিভিন্ন জাতের চারা রোপণ করেছে আমাদের শিক্ষার্থীরা।’
আজকের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য খন্দকার আবদুল বাতেন। টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ নেছার উদ্দিন জুয়েল, উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম ফেরদৌস আহমেদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আকতারুননেছা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন