বিজ্ঞাপন

কনডেনসেট না পাওয়ায় কোম্পানিটির উৎপাদন কার্যক্রম জুলাই থেকে বন্ধ রয়েছে। এর আগে ৫ জুলাই সিভিও পেট্টোকেমিক্যালের পক্ষ থেকে কনডেনসেট সরবরাহ বন্ধ থাকার বিষয়টি বিনিয়োগকারীদের জানানো হয়। সে সময় বলা হয়েছিল, এ কারণে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উৎপাদন বন্ধ থাকবে।

জুলাইয়ের পর আজ কোম্পানিটির পক্ষ থেকে আবারও জানানো হয়, কনডেনসেট সরবরাহ পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় কোম্পানি উৎপাদনে যেতে পারছে না। এ পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে, তা–ও জানাতে পারেনি কোম্পানিটি। ফলে কবে সিভিও পেট্টোর উৎপাদন শুরু হবে, এ নিয়ে রয়েছে অনিশ্চয়তা। কোম্পানি উৎপাদনে না থাকলে স্বাভাবিক নিয়মে কমে যাবে আয়।

এদিকে উৎপাদন শুরু করতে না পারার খবর দেওয়ার পরও প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সিভিও পেট্টোকেমিক্যালের শেয়ারের দামের কোনো হেরফের হয়নি। এদিন লেনদেন শেষে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম দাঁড়িয়েছে ১১৫ টাকা ৪০ পয়সায়, যা আগের দিনের চেয়ে মাত্র ২০ পয়সা কম।

গত ১ জুলাই থেকে আমাদের উৎপাদন সম্পূর্ণরূপে বন্ধ রয়েছে। কনডেনসেট সরবরাহ না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের উৎপাদন চালু করার কোনো সুযোগ নেই। কারণ, আমাদের উৎপাদন পুরোপুরি কনডেনসেট–নির্ভর।
খাজা মঈনউদ্দিন হাসান,কোম্পানি সচিব, সিভিও পেট্টোকেমিক্যাল

জানতে চাইলে সিভিও পেট্টোকেমিক্যালের কোম্পানি সচিব খাজা মঈনউদ্দিন হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘গত ১ জুলাই থেকে আমাদের উৎপাদন সম্পূর্ণরূপে বন্ধ রয়েছে। কনডেনসেট সরবরাহ না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের উৎপাদন চালু করার কোনো সুযোগ নেই। কারণ, আমাদের উৎপাদন পুরোপুরি কনডেনসেট–নির্ভর।’
খাজা মঈনউদ্দিন আরও জানান, সরকারি সংস্থা পেট্টোবাংলা থেকে কনডেনসেট নিয়ে, তা পরিশোধনের মাধ্যমে উৎপাদিত তেল অপর সরকারি সংস্থা বাংলাদেশ পেট্টোলিয়াম করপোরেশন বা বিপিসিকে সরবরাহ করা হয়। এ প্রক্রিয়ার পুরোটাই এখন বন্ধ রয়েছে।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন