বাংলাদেশের পণ্য আমদানির প্রধান ২০টি উৎস দেশের ১৪টি হলো এশিয়ার দেশ। এর বাইরে উত্তর আমেরিকার ও দক্ষিণ আমেরিকার দুটি করে দেশ আছে এই তালিকায়। একটি মাত্র দেশ আছে ইউরোপের। সেটি জার্মানি। আর আছে ওশেনিয়া অঞ্চলের দেশ অস্ট্রেলিয়া।
বাংলাদেশ ব্যাংক ২০১৩-১৪ অর্থবছরের পণ্য আমদানির শীর্ষ ২০ দেশের যে তালিকা প্রস্তুত করেছে, তা থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
এতে দেখা যায়, শীর্ষ ২০ দেশের মধ্যে প্রথম সাতটি হলো এশিয়ার দেশ। এগুলো হলো চীন (৭৫৪.৮ ডলার), ভারত (৬০৩.৫৫), সিঙ্গাপুর (২২৮.৯৫), মালয়েশিয়া (২০৪.১৭), জাপান (১২৮.৩৮), দক্ষিণ কোরিয়া (১১৯.৮৯) ও ইন্দোনেশিয়া (১১০.৪২)।
এই তালিকায় অষ্টম স্থান ব্রাজিলের, যেখান থেকে গত অর্থবছর ৯৯ কোটি ৮০ লাখ ডলারের পণ্য আমদানি করা হয়েছে। নবম ও দশম স্থানে আছে যথাক্রমে তাইওয়ান (৯১.৯৩) ও কুয়েতের (৯১.৪৬)।
যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশ গত অর্থবছর ৮৩ কোটি ৬২ লাখ ডলারের পণ্য আমদানি করায় শীর্ষ আমদানি উৎস দেশের তালিকায় দেশটির অবস্থান ১১তম। এরপর আছে হংকং (৭৫.৯২) ও থাইল্যান্ড (৭৪.১৪)। অস্ট্রেলিয়া (৬০.৬) ও কানাডা (৫৮.৫৪) আছে যথাক্রমে ১৪ ও ১৫তম স্থানে।
শীর্ষ ২০ তালিকার শেষ পাঁচটি দেশ হলো যথাক্রমে জার্মানি (৫৮.৩), উজবেকিস্তান (৫৮.২৯), ভিয়েতনাম (৫৮.২২), পাকিস্তান (৫২.৯৯) ও আর্জেন্টিনা (৪৯.৪৫)।
সাধারণভাবে বাংলাদেশের বেশিরভাগ পণ্য আমদানি হয় এশিয়ার দেশগুলো থেকে। অন্যদিকে রপ্তানির প্রধান বাজার ইউরোপ ও আমেরিকা।
উল্লেখ্য, গত অর্থবছর বাংলাদেশের মোট আমদানি ব্যয় দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৬৪৪ কোটি ১৪ লাখ ডলার।

বিজ্ঞাপন
বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন