এদিকে টুইটার ক্রয়ে মাস্কের দামকে চ্যালেঞ্জ করার ঘোষণা দিয়ে আলোচনায় নতুন মোড় দিয়েছে শেয়ার কেনাবেচায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠান থমা ব্রাভো। তবে এর জন্য কী পরিমাণ অর্থ দিতে চায়, তা জানায়নি তারা। গত ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ এই প্রতিষ্ঠানের ১০৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি সম্পদ ছিল। এ রকম পরিস্থিতিতে কোম্পানির সুরক্ষায় ‘পয়জন পিল’ নীতি নিয়েছে টুইটার।

গত শুক্রবার ইউএস সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কাছে পয়জন পিল পরিকল্পনার বিশদ বিবরণ জমা দিয়েছে টুইটার। পরে এক বিবৃতিতে কোম্পানিটি জানিয়েছে, মাস্কের টুইটার অধিগ্রহণের অযাচিত প্রস্তাবের কারণে এটি করা প্রয়োজন ছিল।

বিশ্বজুড়েই বিভিন্ন কোম্পানিকে অপর কোনো কোম্পানির অধিগ্রহণের ঘটনা অহরহ ঘটছে। কিন্তু কোনো কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পর্ষদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়ে এই অধিগ্রহণ চেষ্টা চালালে তাকে প্রতিকূল অধিগ্রহণ বলা হয়ে থাকে।

যুক্তরাষ্ট্রের সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সাবেক কর্মকর্তা জোশ হোয়াইট বিবিসিকে বলেন, ‘কোনো প্রতিকূল অধিগ্রহণের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষার শেষ অস্ত্র হিসেবে পয়জন পিল ব্যবস্থা নেওয়া হয়। আমরা একে পরমাণু বিকল্প বলে থাকি।’

হোয়াইট আরও বলেন, টুইটার মনে করে না যে এটি কোম্পানির জন্য যথেষ্ট উচ্চ মূল্য। কিন্তু দাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে মাস্ক জানিয়েছেন যে তিনি এর বেশি মূল্য পরিশোধের জন্য কোনো আলোচনা করতে রাজি নন। এটি সঠিক পদ্ধতি হতে পারে না। এ জন্যই টুইটার পয়জন পিল নীতি নিয়েছে। আগামী বছরের ১৪ এপ্রিল এই নীতির মেয়াদ শেষ হবে।

তবে ইলন মাস্ক বলেছেন, চলমান প্রস্তাবে টুইটার অধিগ্রহণ করতে না পারলে তাঁর বিকল্প একটি পরিকল্পনা (প্ল্যান বি) আছে। যদিও সেটির বিষয়ে কিছু জানাননি মাস্ক।

এদিকে ইলন মাস্কের টুইটার কিনে নেওয়ার প্রস্তাবের খবরে আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য কর্মীদের অনুরোধ জানিয়েছেন টুইটারের প্রধান নির্বাহী পরাগ আগারওয়াল। তিনি কর্মীদের আশ্বস্ত করেছেন যে এ জন্য কোম্পানি জিম্মি হয়ে থাকবে না।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন