default-image


চলমান করোনা মহামারিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী উদ্যোক্তাদের জন্য আজ শনিবার থেকে অনলাইন মার্কেট প্লেস ‘আনন্দমেলা’ চালু হয়েছে। মূলত ঈদ সামনে রেখে এই মার্কেট প্লেসের উদ্যোগ নিয়েছে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি—ইউএনডিপি ও জয়িতা ফাউন্ডেশন। এই আনন্দমেলা চলবে ৬ মে পর্যন্ত।

আজ ইউএনডিপির পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে। আনন্দমেলা নামের ফেসবুক পেজে চলবে এই মেলা। ফেসবুক পেজের ঠিকানা হলো facebook. com/anondomelashop। প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত চলবে। মেলায় রয়েছে নারী উদ্যোক্তাদের তৈরি পোশাক, গয়না, খাদ্যসামগ্রীসহ নানা পণ্য।
করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সহযোগিতা করতে গত বছরের এপ্রিল মাসে এই ধরনের আনন্দমেলার আয়োজন করেছিল ইউএনডিপি।
এ বিষয়ে ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি বলেন, ‘আমাদের এই উদ্যোগের মূল লক্ষ্য হলো করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত উদ্যোক্তাদের ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে দেওয়া।

অন্যদিকে বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একটি দীর্ঘমেয়াদি উদ্যোগ হলো জয়িতা ফাউন্ডেশন। ফাউন্ডেশনটি নারী উদ্যোক্তাদের তৈরি পণ্যের প্রদর্শনী এবং বিক্রয়ের সুবিধা তৈরি করে দেয়।

বিজ্ঞাপন
‘আনন্দমেলা’ নামের একটি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে মেলার আয়োজন করেছে ইউএনডিপি ও জয়িতা ফাউন্ডেশন। ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী উদ্যোক্তারা তাঁদের পণ্য বিক্রি করতে পারবেন এই পেজের মাধ্যমে।

জয়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খান বলেন, এই মেলার মাধ্যমে ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী উদ্যোক্তারা বৃহৎ জনগোষ্ঠীর কাছে তাঁদের পণ্য বিক্রির সুযোগ পাবেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আগ্রহী উদ্যোক্তাদের আনন্দমেলায় বিক্রেতা হিসেবে অংশগ্রহণের আহ্বান করা হয়। ‘একশপ’ এর মাধ্যমে তাদের পণ্য নির্বিঘ্নে পৌঁছে দেওয়া উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একটি দীর্ঘমেয়াদি উদ্যোগ হলো জয়িতা ফাউন্ডেশন। ফাউন্ডেশনটি নারী উদ্যোক্তাদের তৈরি পণ্যের প্রদর্শনী এবং বিক্রয়ের সুবিধা তৈরি করে দেয়।

জয়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খান বলেন, এই মেলার মাধ্যমে ক্ষুদ্র ও মাঝারি নারী উদ্যোক্তারা বৃহৎ জনগোষ্ঠীর কাছে তাঁদের পণ্য বিক্রির সুযোগ পাবেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আগ্রহী উদ্যোক্তাদের আনন্দমেলায় বিক্রেতা হিসেবে অংশগ্রহণের আহ্বান করা হয়। ‘একশপ’ এর মাধ্যমে তাদের পণ্য নির্বিঘ্নে পৌঁছে দেওয়া উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
উদ্যোক্তা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন