বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
ঈদের দিন বিপণিবিতান খোলা না থাকায় মূলত বিপণিবিতানের বাইরে থাকা শোরুমগুলোই খোলা রেখেছে তারা। পাশাপাশি কাল বৃহস্পতিবারও এসব শোরুম খোলা রাখা হবে।

ব্র্যান্ডগুলোর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদের দিন বিপণিবিতান খোলা না থাকায় মূলত বিপণিবিতানের বাইরে থাকা শোরুমগুলোই খোলা রেখেছে তারা। এসব শোরুমকে ব্র্যান্ডগুলো বলছে একক দোকান। আজ বুধবার ঈদের দিনের পাশাপাশি কাল বৃহস্পতিবারও এসব শোরুম খোলা রাখা হবে।

দেশীয় পোশাকের ব্র্যান্ড সেইলর তাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জানিয়েছে, ঢাকার বসুন্ধরা, যমুনা ফিউচার পার্ক, পুলিশ প্লাজা ও কুমিল্লার আউটলেট ছাড়া তাদের অন্য সব শোরুম আজ বিকেল ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা। আর আগামীকাল ঈদের পরদিন খোলা থাকবে বেলা ১১টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত।

আমরা দেখছি দোকান খোলা থাকলেই ক্রেতা পাওয়া যায়। এ ছাড়া ২৩ তারিখ থেকে কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হলে আবার সবকিছু বন্ধ হয়ে যাবে। তাই আমরা ঈদের দিন ও ঈদের পরদিনও শোরুম খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
মতিউর রহমান,পরিচালন প্রধান, সারা লাইফস্টাইল

পোশাকের আরেক ব্র্যান্ড আর্টিসানও আজ এবং আগামীকাল স্বাভাবিক সময়ের মতোই খোলা। এই প্রতিষ্ঠানটিরও বিপনিবিতানের শাখাগুলো ছাড়া সব কটি শাখা খোলা। আর সারা লাইফস্টাইল জানিয়েছে, আজ ঈদের দিন বিকেল ৫টা থেকে তাদের বিপণিবিতানের বাইরের শোরুমগুলো খোলা রয়েছে। আগামীকালও এসব শোরুম বেলা ৩টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

জানতে চাইলে সারা লাইফস্টাইলের পরিচালন কার্যক্রমের প্রধান মতিউর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা দেখছি দোকান খোলা থাকলেই ক্রেতা পাওয়া যায়। এ ছাড়া ২৩ তারিখ থেকে কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হলে আবার সবকিছু বন্ধ হয়ে যাবে। তাই আমরা ঈদের দিন ও ঈদের পরদিনও শোরুম খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যাতে ক্রেতারা এ দুদিন কেনাকাটার সুযোগ পান।’

এই প্রথম আমরা ঈদের পরদিনই দোকান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যাতে শিথিল বিধিনিষেধের সুযোগকে কিছুটা হলেও কাজে লাগানো যায়
মো. জাকির হোসেন, পরিচালক, লুবনান

এদিকে আজ খোলা না থাকলেও আগামীকাল খোলা থাকবে লুবনান, রিচম্যান অ্যাপারেলস, ইনফিনিটি মেগা মল ও লুবনান এথনিক উইয়ারের বিপণিবিতানের বাইরের শোরুমগুলো। লুবনানের পরিচালক মো. জাকির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘এই প্রথম আমরা ঈদের পরদিনই দোকান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যাতে শিথিল বিধিনিষেধের সুযোগকে কিছুটা হলেও কাজে লাগানো যায়।’

বিচ্ছিন্নভাবে কিছু ব্র্যান্ড তাদের শোরুম খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিলেও বাংলাদেশ ফ্যাশন উদ্যোক্তা সমিতি (এফইএবি) থেকে সামগ্রিকভাবে শোরুম খোলা রাখার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। সমিতির সাবেক সভাপতি আজহারুল হক আজাদ বলেন, ‘বিপণিবিতান খোলা থাকার পরও গত ছয় দিনে আশানুরূপ বিক্রি হয়নি। তাই ঈদের দিন প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার কোনো সিদ্ধান্ত নিইনি আমরা।’

এদিকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের শোরুম খোলা থাকলেও বন্ধ রয়েছে রাজধানীর প্রায় সব বিপণিবিতান। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘ঈদের কয়েক দিন ছুটি পাওয়া কর্মীদের অধিকার। আমরা এটা খর্ব করতে চাইনি।’

উদ্যোক্তা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন