ঋণগ্রহীতার দায় বর্তাবে ব্যাংকারের ওপর

বিজ্ঞাপন

কোনো গ্রাহককে ঋণ দেওয়ার আগে গ্রাহকের কর যাচাই করতে হবে ব্যাংকারদের। যাচাই না করার পরে কোনো অসংগতি ধরা পড়লে, তার দায় পড়বে ব্যাংক কর্মকর্তাদের ওপর। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এমন একটি প্রস্তাব পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে। কর আদায়ের স্বার্থে কেন্দ্রীয় ব্যাংকও বিষয়টি ইতিবাচকভাবে দেখছে। শিগগির ব্যাংকগুলোর উদ্দেশে এ নিয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে ব্যাংকগুলোর ওপর নতুন করে একটি কাজ যুক্ত হবে। এ নিয়ে ক্ষুব্ধ ব্যাংক কর্মকর্তারা। কর্মকর্তারা বলছেন, কোন গ্রাহক কী পরিমাণ কর দিল, তা দেখার দায়িত্ব একান্তই এনবিআরের। ব্যাংক করের টাকা গ্রহণ করতে পারে।
ঋণ অনুমোদনকালে প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট রিটার্নে দেওয়া তথ্য যাচাইয়ে ব্যাংকগুলোকে বাধ্যবাধকতায় আনতে গত বৃহস্পতিবার এনবিআরের আওতাধীন ভ্যাট গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছে।চিঠিতে বলা হয়, ঋণ বিবেচনার সময় ব্যাংকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিটার্ন পরীক্ষাকালে কোনো অসংগতি পেলে তা তাৎক্ষণিক ভ্যাট গোয়েন্দা অফিসকে জানাতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও ব্যাংক কর্মকর্তা দায়ী থাকবেন।

ভ্যাট নিরীক্ষা, গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ মুশফিকুর রহমান বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামালের কাছে এ চিঠি পাঠিয়েছেন। চিঠিতে ব্যাংকগুলোর উদ্দেশে নির্দেশনা জারি করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন