default-image

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাটের সনদ ঝুলিয়ে রাখতে হবে। প্রতিষ্ঠানের দৃশ্যমান কোনো স্থানে এই সনদ রাখতে সম্প্রতি নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ভ্যাট বিভাগ। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তা সঠিকভাবে রাখছে কি না, তা তদারকিতে প্রত্যেক ভ্যাট কমিশনারেটকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ১৬ জুলাইয়ের মধ্যে এ নিয়ে কী ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা জানাতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সভাপতি রুহুল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, ‘এই করোনার সময়ে এমনিতেই ব্যবসা-বাণিজ্যে মন্দা। এমন অবস্থায় ভ্যাট কর্মকর্তারা যদি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভ্যাটের সনদ দেখতে আসেন, তাহলে তা ব্যবসায়ীদের ওপর মানসিক চাপ সৃষ্টি করবে। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়তে পারে।’

পুরোনো ভ্যাট আইনেই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সনদ ঝুলিয়ে রাখার বিষয়টি ছিল। গত বছরের জুন থেকে চালু হওয়া নতুন আইনেও তা রাখা হয়। কিন্তু নতুন আইনে এভাবে সনদ রাখার বিষয়টি অনেক ব্যবসায়ী জানেন না। অনেকে ভ্যাট সনদ নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে প্রদর্শন করেন না। তাই নতুন করে বিষয়টি মনে করিয়ে দেওয়া হলো। সনদ না রাখলে ১০ হাজার টাকার জরিমানার বিধানও আছে।

বিভিন্ন কমিশনারেটকে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভ্যাট সনদ দৃশ্যমান স্থানে ঝুলিয়ে রাখছে না, যা আইনত জরিমানা আরোপযোগ্য অপরাধ। মাঠপর্যায়ের দপ্তরগুলোও আইনের বিধানটি নিশ্চিত করতে পারছেন না। তাই মাঠপর্যায়ে তদারকির নির্দেশ দেওয়া হয় ওই চিঠিতে।

ওই চিঠিতে নির্দেশ বেশ কয়েকটি দেওয়া হয়েছে। যেমন মাঠপর্যায়ের ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলোয় সঠিকভাবে ভ্যাট সনদ দৃশ্যমান স্থানে রাখা হচ্ছে কি না, তা দেখতে নিয়মিত পরিদর্শন অভিযান পরিচালনা করা। কতটি প্রতিষ্ঠান ভ্যাট সনদ রাখছে, তা নিয়ে একটি জরিপ পরিচালনার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন