বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) তালিকাভুক্ত সরকারি মালিকানাধীন কোম্পানি রয়েছে ১৮টি। এর মধ্যে গতকাল লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির তালিকায় ছিল ৪টি কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো পাওয়ার গ্রিড, বিএসসি, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্‌লস ও তিতাস গ্যাস। এই চার কোম্পানির শেয়ারের দাম বলতে গেলে একটানা বাড়ছে প্রায় ১২ কার্যদিবস ধরে। এতে পাওয়ার গ্রিড, বিএসসি ও বাংলাদেশ সাবমেরিনের শেয়ারের দাম গত দুই বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে উঠে গেছে।

লেনদেনের শীর্ষ ১০–এ থাকা সরকারি ৪ কোম্পানির গতকালের সম্মিলিত লেনদেনের পরিমাণ ছিল ২৬৩ কোটি টাকা, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের প্রায় ১৮ শতাংশ। ঢাকার বাজারে গতকাল লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকা।

সরকারি কোম্পানিগুলোর মধ্যে গতকাল মূল্যবৃদ্ধিতে শীর্ষে ছিল বিএসসি ও পাওয়ার গ্রিড। এ দুটি কোম্পানি গতকাল দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মূল্যবৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানির তালিকায় ছিল। এর মধ্যে বিএসসির শেয়ারের সর্বোচ্চ মূল্যবৃদ্ধির পর একপর্যায়ে বিক্রেতাশূন্য হয়ে পড়ে। কোম্পানিটির শেয়ারের দাম ১২ কার্যদিবসে ৪৯ টাকার শেয়ারের দাম বেড়েছে ৬৬ টাকা বা ১৩৪ শতাংশ।

গতকাল দিন শেষে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়ে হয়েছে প্রায় ১১৬ টাকা।
বিএসসির মতো পাওয়ার গ্রিডের শেয়ারেরও সর্বোচ্চ মূল্যবৃদ্ধি ঘটেছে গতকাল। পাশাপাশি এটি ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল। গত ১১ কার্যদিবসে বিদ্যুৎ খাতের সরকারি এ কোম্পানির শেয়ারের দাম সাড়ে ১৯ টাকা বা ৩৫ শতাংশ বেড়েছে।
এ ছাড়া সরকারি খাতের আরেক কোম্পানি বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্‌লসের শেয়ারের দাম গতকাল এক দিনেই ৮ শতাংশ বা ১৮ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪৪ টাকায়। গত ১২ কার্যদিবসে এ কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৫৯ টাকা বা ৩২ শতাংশ। লেনদেনের দিক থেকে ঢাকার বাজারে গতকাল এ কোম্পানি ছিল চতুর্থ অবস্থানে।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে বিএসসির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএসের বড় ধরনের উত্থানের পর এ শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের প্রবল আগ্রহ তৈরি হয়। তাতে কোম্পানিটি ২৬ ডিসেম্বর থেকে লেনদেনের শীর্ষপর্যায়ে উঠে আসে। পাশাপাশি প্রতিদিনই কোম্পানিটির শেয়ারের দাম সর্বোচ্চ পরিমাণে বেড়েছে। বিএসসির শেয়ারের দামের এ উত্থান দেখে সরকারি অন্যান্য শেয়ারের প্রতিও বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ তৈরি হয়। তবে অন্যান্য কোম্পানির আয়ের ক্ষেত্রে বিএসসির মতো বড় ধরনের কোনো হেরফের হয়নি। ফলে সরকারি অন্যান্য শেয়ারের এমন মূল্যবৃদ্ধি শেষ পর্যন্ত স্থায়ী হবে কি না, এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

এদিকে সরকারি কোম্পানির এমন মূল্যবৃদ্ধির দিনে বাজারেও সূচকের বড় উত্থান হয়েছে। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স এদিন ৬২ পয়েন্ট বা প্রায় ১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৯৯৪ পয়েন্টে। সূচকটি ৭ হাজার পয়েন্টের মাইলফলক থেকে মাত্র ২ পয়েন্ট পেছনে রয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে ডিএসইএক্স সূচকটি সাত হাজার পয়েন্টের মাইলফলককে কেন্দ্র করে ঘুরপাক খাচ্ছে।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন