default-image

দেশে ক্রেতাদের অনলাইনে কেনাকাটা করার ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণে ‘ক্যাশলেস পে’ বা ‘নগদবিহীন পরিশোধ’ নামে নতুন একটি সেবা চালু হয়েছে। মাস্টারকার্ড ও ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের (ইবিএল) সঙ্গে অংশীদারত্বের মাধ্যমে হোম ডেলিভারি বা পণ্য সরবরাহকারী নেটওয়ার্ক পেপারফ্লাই এই ডিজিটাল বা প্রযুক্তিভিত্তিক সেবা নিয়ে এসেছে।

সেবাটি চালুর ফলে ক্রেতারা অনলাইনে আদেশ দেওয়ার পর যখন তাঁদের দোরগোড়ায় পণ্য পৌঁছাবে, তখন নগদ অর্থের পরিবর্তে ডিজিটাল উপায়ে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন। সারা দেশেই মিলবে এই সেবা।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক প্রধান অতিথি হিসেবে গতকাল রোববার এক ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে সেবাটির উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক হুমায়ুন কবির, বেসিসের চেয়ারম্যান সৈয়দ আলমাস কবির ও ই-ক্যাবের চেয়ারম্যান শমী কায়সার।

পেপারফ্লাই, ইবিএল ও মাস্টারকার্ডের এক যৌথ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নতুন এই সেবার কথা জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, ইবিএলের মাধ্যমে মাস্টারকার্ডের পেমেন্ট টেকনোলজির সহযোগিতায় সেবাটি নিশ্চিত করবে পেপারফ্লাই। এ জন্য কোনো পয়েন্ট অব সেলস (পিওএস) মেশিনের প্রয়োজন নেই। ক্রেতাদের শুধু স্মার্টফোন ও ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই তাঁরা পেপারফ্লাইয়ের সরবরাহ করা পণ্যের দাম পরিশোধ করতে পারবেন।

এতে বলা হয়, বর্তমানে দেশে অনলাইনভিত্তিক কেনাকাটার দাম পরিশোধের ক্ষেত্রে ৯৫ শতাংশই সম্পন্ন হয় ক্যাশ-অন-ডেলিভারি (সিওডি) অর্থাৎ পণ্য পেয়ে নগদ অর্থ প্রদানের মাধ্যমে। কোভিড-১৯ মানুষকে নগদ অর্থ লেনদেনের পরিবর্তে ডিজিটাল পেমেন্টের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। ব্যাংক নোট বা নগদ টাকা স্পর্শ করা স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করতে পারে, এমন আশঙ্কা থাকায় মানুষ ক্রমান্বয়ে নগদবিহীন লেনদেনে ঝুঁকছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন সময়ে ভার্চ্যুয়াল মুদ্রার দিকে আমাদের মনোযোগী হতে হবে। বিটকয়েনের মতো মুদ্রাকে অনুমোদন না দিলেও এই বিষয়ে আমাদের ভাবতে হবে। বিষয়টি নিয়ে নীতিনির্ধারণী বৈঠক করতে হবে। তা না হলে আমরা পিছিয়ে পড়ব।’

পেপারফ্লাইয়ের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা রাহাত আহমদে বলেন, ‘আমাদের এই উদ্যোগের ফলে ক্রেতা-ভোক্তারা যেমন নগদ অর্থের বিকল্প উপায়ে পণ্যের দাম পরিশোধের সুযোগ পাচ্ছেন, তেমনি আমাদের মতো অনলাইনে পণ্য বিক্রয়কারীদের জন্যও দ্রুত নগদ অর্থপ্রবাহের সুযোগ তৈরি হয়েছে।’

ইবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রেজা ইফতেখার বলেন, ‘পেপারফ্লাই ও মাস্টারকার্ডের সঙ্গে এমন একটি সময়োপযোগী সেবা চালু করতে পেরে আমরা আনন্দিত।’

মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল বলেন, নতুন এই ‘ক্যাশলেস পে’ সেবা চালুর ফলে ভোক্তারা অনলাইনে নিজেদের অর্ডার করা পণ্যের ডেলিভারি বা পণ্য হাতে পাওয়ার পরে নিরাপদে ও স্বাচ্ছন্দ্যে মাস্টারকার্ডের ডেবিট, ক্রেডিট ও প্রি–পেইড কার্ড এবং মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন।

বিজ্ঞাপন
বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন