‘পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হবে ২০২২ সালে’

বিজ্ঞাপন
default-image

পদ্মা বহুমুখী সেতুর নির্মাণকাজ ২০২২ সালে শেষ হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। করোনাভাইরাস মহামারি ও বন্যায় কাজ বাধাগ্রস্ত না হলে তা ২০২১ সালেই শেষ হতো বলে জানান তিনি।  
সচিবালয়ে বুধবার সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অর্থমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পের মূল সেতু ও নদীশাসন কাজ তদারকির জন্য পরামর্শক সংস্থার মেয়াদ আরও ৩৪ মাস বাড়ানোর প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ জন্য সরকারের ব্যয় হবে ৩৪৮ কোটি এক লাখ ৩২ হাজার টাকা। তবে প্রকল্প ব্যয় যা ছিল তাই থাকবে।
অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে কাজ শেষ হবে বলে আমাদের সবারই প্রত্যাশা ছিল এবং সেভাবেই কাজটি এগোচ্ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস সবকিছু ওলটপালট করে দিয়েছে। প্রকল্পটি বাধাগ্রস্ত হয়েছে। ২০২২ সাল পর্যন্ত এ প্রকল্পের মেয়াদ বাড়িয়েছি। আমরা আশা করি এর মধ্যেই এ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০২০ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত ২২ মাস নির্মাণকাজ তদারকি এবং ডিফেক্ট লাইয়াবেলিটি পিরিয়ড (ডিএলপি) ১২ মাসসহ মোট ৩৪ মাস বাড়ানো হয়েছে মঙ্গলবার। কাজটি করছে কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন (কেইসি) অ্যান্ড এএমপি অ্যাসোসিয়েটস।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রকল্পের মেয়াদ ও পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের মেয়াদ বাড়ানোর কারণে চলতি আগস্ট মাস পর্যন্ত কেইসির প্রাপ্য অর্থের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬০৯ কোটি ১৪ লাখ টাকা। সে হিসাবে মূল সেতু নির্মাণ ও নদীশাসন কাজ তদারকিতে মোট পরামর্শক ব্যয় দাঁড়াচ্ছে প্রায় ৯৫৭ কোটি ১৫ লাখ টাকা।
জানা গেছে, গত জুলাই পর্যন্ত মূল সেতুর কাজের অগ্রগতি হয়েছে ৮৯ দশমিক ২৫ শতাংশ, নদীশাসনের কাজের ৭৪ শতাংশ এবং প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি হচ্ছে ৮১ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন