দেশের তৈরি পোশাক খাতে যৌথভাবে বিনিয়োগ করতে চান ভারতের ব্যবসায়ীরা। তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে এমন আগ্রহ প্রকাশ করেছে কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রির (সিআইআই) প্রতিনিধিদল।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বিজিএমইএ ভবনের অ্যাপারেল ক্লাবে গত রোববার উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিজিএমইএর সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির, মাহমুদ হাসান খান, পরিচালক শহিদুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

তিন দিনের সফরে বাংলাদেশে আসা ১২ সদস্যের সিআইআই প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন ভারতের করোনা নিটওয়্যারের যুগ্ম ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস কাথিরেশ।

জানা যায়, পোশাক খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করলেও বিজিএমইএর নেতারা ভারতের ব্যবসায়ীদের বলেছেন, তৈরি পোশাকশিল্পে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ। তবে এ খাতের পশ্চাৎসংযোগ শিল্প ও উচ্চমূল্যের পোশাক পণ্য তৈরি এবং বস্ত্র খাতে বিনিয়োগ করতে পারেন ভারতের ব্যবসায়ীরা।

জানতে চাইলে বিজিএমইএর সভাপতি গতকাল সোমবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘ভারতের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে একক বা যৌথভাবে বিনিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।’

সিদ্দিকুর রহমান আরও বলেন, কোন খাতে বিনিয়োগের সম্ভাবনা আছে, তাঁরা তা আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন। আমরা তাঁদের বলেছি, বাংলাদেশে বস্ত্র খাতে ঘাটতি আছে। ওভেন পোশাকের কাপড়ের ৬০-৬৫ শতাংশই আমদানি করতে হয়।’

এদিকে, গতকাল বিজিএমইএর পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভারতে পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশ শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেও কিছু অশুল্ক বাধা, যেমন জটিল ভিসা পদ্ধতি, ট্রানজিট সমস্যা এবং বাণিজ্যের কিছু কৌশলগত বাধা রয়ে গেছে। এই বাধাগুলো দূর করতে বিজিএমইএর নেতারা সিআইআই প্রতিনিধিদলের সহযোগিতা চান। এ ছাড়া ভারতে বাংলাদেশের পোশাকের ব্র্যান্ডিংয়ের ক্ষেত্রে দুই দেশের ব্যবসায়ীরা যৌথ উদ্যোগ নিতে পারেন কি না, তা নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0