পোশাকশ্রমিকদের ২০ জুলাইয়ের মধ্যে ঈদ বোনাস দেওয়ার দাবি

বিজ্ঞাপন
default-image

রপ্তানিমুখী পোশাকশিল্পের শ্রমিকদের ২০ জুলাইয়ের মধ্যে ঈদ বোনাস দেওয়ার দাবি করেছে বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতি। একই সঙ্গে পবিত্র ঈদুল আজহার আগে চলতি জুলাই মাসের মজুরি দেওয়ার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

দাবি আদায়ে আজ বুধবার বেলায় ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির নেতা-কর্মীরা। এ সময় বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জুলহাসনাইন বাবু, অর্থ সম্পাদক প্রবীর সাহা, সমাজকল্যাণ সম্পাদক প্রদীপ রায় প্রমুখ।

শ্রমিকনেতারা বলেন, প্রতিবছরের মতো এবারও ঈদের আগে মজুরি ও বোনাস পাওয়া নিয়ে পোশাকশ্রমিকদের মধে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা বাড়ছে। অন্যবারের চেয়ে বর্তমান পরিস্থিতি কিছুটা ভিন্ন। কারণ, করোনা শুরুর পর থেকেই পোশাক খাতের শ্রমিকেরা চরম অনিশ্চয়তা ও ছাঁটাইয়ের হুমকির মধ্যে আছেন। তাই ২০ জুলাইয়ের মধ্যে বোনাস দিতে হবে। আর ৩১ জুলাই বা ১ আগস্ট যেহেতু পবিত্র ঈদুল আজহা, তাই চলতি মাসের পূর্ণ মজুরি পাওয়া শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার।

করোনাকালে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের বিষয়ে শ্রমিকনেতারা বলেন, অনেক শ্রমিক কাজ হারিয়ে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। বাসাভাড়া ও দোকানের বাকি পরিশোধ করতে পারছেন না। অনেকে গ্রামে ফিরে যাচ্ছেন। শ্রমিকদের টিকিয়ে রাখতে শিগগিরই শিল্পমালিক, বিদেশি ক্রেতা ও সরকারের উদ্যোগে জরুরি তহবিল গঠন করতে হবে।

পোশাকশ্রমিকদের মজুরি-ভাতা পরিশোধের বিষয়টি নিয়ে কাল বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সেটি উল্লেখ করে শ্রমিকনেতারা অভিযোগ করে বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মানে সরকার পোশাকশ্রমিকদের আন্দোলন মোকাবিলা করতে চাইছে পুলিশি নির্যাতন ও হামলা–মামলার মাধ্যমে। কিন্তু পুলিশ দিয়ে শ্রমিকের সমস্যার সমাধান হবে না। শ্রমিকদের কর্মহীন না করে বর্তমান কঠিন সময় কীভাবে অতিক্রম করা যায়, সেটি অনুসন্ধান করতে হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন