জেমিনি গার্মেন্টসের শ্রমিক-কর্মচারীরা তাঁদের জানুয়ারি মাসের বেতন বুঝে পেয়েছেন। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হচ্ছিল।
জানা যায়, গতকাল রাতে শ্রমিক-কর্মচারীদের জানুয়ারির বেতন দেয় মালিকপক্ষ। দিনের বেলায় বেতনের টাকা জোগাড় করতে জেমিনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফজলুর রহমান কারখানার পাশে ব্যাংকে যান। এ সময় শ্রমিকেরা মালিককে পাহারা দিয়ে ব্যাংকে নিয়ে যান, আবার কারখানায় ফিরিয়ে নিয়ে আসেন। অবশ্য এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (রাত পৌনে নয়টা) বেতন পরিশোধ হলেও কয়েকটি দাবির বিষয়ে সুস্পষ্ট আশ্বাস না পাওয়ায় শ্রমিকেরা জেমিনির এমডি ফজলুর রহমান ও পরিচালক আবুল কালাম আজাদকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রমিক নেতা তপন সাহা বলেন, প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ ও ব্যর্থ হলে বিজিএমইএকে দায়-দায়িত্ব গ্রহণ এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না—মালিকপক্ষের কাছে এমন নিশ্চয়তা দাবি করা হয়েছে।
অবরুদ্ধ ফজলুর রহমান বলেন, ‘আমরা কারখানা চালাব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাই বেতন দেওয়ার পর শ্রমিকদের সঙ্গে বসে আলোচনা করব।’ তিনি বলেন, ‘আমরা দুজন মালিক দুদিন ধরে কারখানার ভেতর অবরুদ্ধ হয়ে থাকলেও বিজিএমইএ আমাদের পাশে এসে দাঁড়ায়নি।’
এই অভিযোগের বিষয়ে বিজিএমইএর সহসভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম বলেন, ‘জেমিনির সমস্যা সমাধানে আমরা আমাদের প্রতিনিধি পাঠিয়েছি। দফায় দফায় দুই মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করছি।’

বিজ্ঞাপন
বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন