default-image

বাংলাদেশের ক্লিয়ারিং ও ফরোয়ার্ডিং এজেন্টদের আন্দোলনের মুখে আবার বন্ধ হয়ে গেল পেট্রাপোল- বেনাপোল সীমান্তপথে ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্য কার্যক্রম। এতে পেট্রাপোল–বেনাপোল সীমান্তের দুই পাশে আটকে পড়েছে দুই দেশের ২ হাজার ৩০০ পণ্যবাহী ট্রাক। এসব ট্রাকে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যসহ পচনশীল পণ্যও রয়েছে।

বাংলাদেশের ক্লিয়ারিং ও ফরোয়ার্ডিং এজেন্টরা বলছেন, ভারত থেকে নিয়মিত পণ্য আমদানি হলেও বাংলাদেশ থেকে এই সীমান্ত পথে পণ্য রপ্তানি হচ্ছিল না।এতে বেনাপোল সীমান্তে আটকে পড়ে বাংলাদেশের পণ্যবাহী ৭০০ ট্রাক। অবিলম্বে বাংলাদেশ থেকেও পণ্য রপ্তানি চালুর দাবি জানান তাঁরা। এই আন্দোলনের জেরে গতকাল বুধবার থেকে ভারত থেকে আমদানি করা পণ্য ঢুকতে না দেওয়ায় এখন এই সীমান্তে ১ হাজার ৬০০ ট্রাক আটকে পড়েছে । এর মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসহ পচনশীল পণ্যও রয়েছে।

পেট্রাপোলের আমদানি-রপ্তানির সঙ্গে যুক্ত ব্যবসায়ীরা জনান, গতকাল থেকে বেনাপোলে পেট্রাপোল সীমান্ত পথে ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাক ঢুকতে না দেওয়ায় কার্যত বন্ধ হয়ে যায় সীমান্ত বানিজ্য।

এর আগে লকডাউনের কারণে মার্চ মাস থেকেই বন্ধ ছিল পেট্রাপোল-বেনাপোল স্থলসীমান্ত পথে দুই দেশের বাণিজ্য কার্যক্রম। পরে দুই দেশের আমদানি-রপ্তানিকারদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৭ জুন থেকে শুরু হয় সীমান্ত বাণিজ্য কার্যক্রম।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন