বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
আন্তর্জাতিক বাজারে যে হারে বাড়ছে, বাংলাদেশে তার চেয়ে বেশি হারে দাম বাড়ছে কি না। এ নিয়ে নজরদারির অভাব আছে। এমনকি এ নিয়ে কোনো পর্যালোচনাও নেই। যাঁরা দায়িত্বে আছেন, তাঁদের এ বিষয়ে নজরদারি জোরদার করা উচিত। কারণ, পণ্যের দাম বেড়ে গেলে সবার ওপর চাপ বেড়ে যায়।
সেলিম রায়হান, নির্বাহী পরিচালক, সানেম

পাশাপাশি শুল্ক কমিয়েও আমদানি পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখা যেতে পারে। তবে শুল্ক কমানোর পর সেই হারে দাম কমল কি না, তা তদারকি করতে হবে। ব্যবসায়ীদের জবাবদিহির বাইরে না রেখে তাদের জবাবদিহির মধ্যে আনতে হবে। পণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে সরকারের এক সংস্থার কাছে সব তথ্য থাকার উদ্যোগ নিতে হবে। যাতে করে কোনো সংকট তৈরি না হয়।

আর নিম্ন আয়ের ও গরিব মানুষের মধ্যে সামাজিক সুরক্ষার আওতা বাড়াতে হবে। ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মাধ্যমে কম দামে খাদ্য বিক্রির উদ্যোগ অব্যাহত রাখতে হবে। যে কার্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে, তা যেন প্রকৃত গরিবদের মধ্যে পৌঁছায়, তা নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি আরও বেশি কার্ড দেওয়ার উদ্যোগ নিতে হবে। ভর্তুকি মূল্যে নিত্যপণ্য বিক্রির জন্য টিসিবির গাড়ির সংখ্যা বাড়াতে হবে। যেভাবে হোক, মানুষের খাদ্যচাহিদা মেটাতে হবে। এটা মেটাতে না পারলে সামাজিক অস্থিরতা দেখা দেবে। তখন অন্য সমস্যাগুলো সামনে আসবে। এসব বিষয়ে এখনই সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন