বিশাল জনগোষ্ঠীকে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করেই দেশকে মধ্য আয়ের দেশে পরিণত করা সম্ভব। মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ১৬ কোটি মানুষকে সম্পদে রূপান্তর করা সম্ভব। এ জন্য বাংলাদেশে পৃথক মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় প্রয়োজন। আজ শনিবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চতুর্থ আন্তর্জাতিক মানবসম্পদ সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ সোসাইটি ফর হিউম্যান রিসোর্সেস ম্যানেজমেন্ট (বিএসএইচআরএম) এ সম্মেলনের আয়োজন করে। ‘পিপল ড্রাইভ বিজনেস’ প্রতিপাদ্য দিয়ে আয়োজিত এ সম্মেলনে দেশ-বিদেশের খ্যাতনামা মানবসম্পদ বিশেষজ্ঞরা অংশ নেন।
বিএসএইচআরএমের প্রেস ও মিডিয়া কমিটির আহ্বায়ক মো. রিয়াদ হোসেনের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।
বিএসএইচআরএম বাংলাদেশের মানবসম্পদ পেশাজীবীদের সর্ববৃহৎ ও স্বীকৃত সংস্থা, যা প্রায় ১ হাজার ৫০০ মানবসম্পদ পেশাজীবীদের নিয়ে গঠিত ও পরিচালিত।
বক্তারা আরও বলেন, মানবসম্পদের ওপরই প্রতিষ্ঠানের সাফল্য নির্ভর করে। তাই প্রতিষ্ঠানের স্বার্থেই দক্ষ মানবসম্পদ নিয়োগ এবং তাদের দেখভাল করা জরুরি।
সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়া এইচআর ইনস্টিটিউটের সভাপতি পিটার উইলসন বলেন, ‘বাংলাদেশ মানবসম্পদ উন্নয়নে বেশ এগিয়েছে। সামনে আরও আগাবে বলে আশা করছি। ’ তিনি বলেন, প্রযুক্তি ব্যবহারে কম সময়ে বেশি কাজ করা সম্ভব। তা ছাড়া প্রযুক্তি ব্যবহারে সময়ও কম লাগে এবং তথ্য নির্ভুলভাবে সংরক্ষণ করা সম্ভব। তাই মানবসম্পদ উন্নয়নে প্রযুক্তি ব্যবহার বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দেন তিনি।
বিএসএইচআরএমের প্রেসিডেন্ট মো. মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে ভারতের প্রখ্যাত মানবসম্পদ উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ টি ভি রাও, বিএসএইচআরএমের কোষাধ্যক্ষ মো. মাশেকুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য দেন।
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন বিএসএইচআরএমের নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী এম. আহমেদ।

বিজ্ঞাপন
বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন