default-image

জাপানের মোবাইল অপারেটর এনটিটি ডোকোমো রবি আজিয়াটায় তাদের মালিকানা ছেড়ে দিচ্ছে। এখন রবির শেয়ারের ৬ দশমিক ৩১ শতাংশ রয়েছে ডোকোমোর মালিকানায়। এই শেয়ার তারা ভারতীয় এয়ারটেলের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে।

শেয়ার হস্তান্তর বিষয়ে ডোকোমো অনুমোদন চেয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের কাছে চিঠি দিয়েছে। কমিশন এ বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কাছে সুপারিশ পাঠিয়েছে।

জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তফা জব্বার প্রথম আলোকে বলেন, এখন অফিস বন্ধ। অফিস খোলার পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত। মন্ত্রী বলেন, ‘এখনো বিষয়টি আমার কাছে আসেনি। অফিস খুললে পাব।’

রবি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বড় মোবাইল অপারেটর। ২০০৮ সালে রবির (তখনকার অ্যাকটেল) ৩০ শতাংশ মালিকানা নিয়ে বাংলাদেশে আসে ডোকোমো। পরে তারা শেয়ার কমিয়ে কমিয়ে ৬ শতাংশে নামায়। ডোকোমো শেয়ার কিনেছিল বাংলাদেশের এ কে খান অ্যান্ড কোম্পানির কাছ থেকে। ২০১৩ সালে ডোকোমো তাদের শেয়ার ৮ শতাংশে নামিয়ে আনে। ২০১৬ সালে রবি ও এয়ারটেল একীভূত হওয়ার পর ডোকোমোর হিস্যা দাঁড়ায় ৬ শতাংশে।

বাংলাদেশে রবি আজিয়াটা ব্যবসা করছে ১৯৯৭ সাল থেকে। ব্যবসার বেশির ভাগ সময়ই প্রতিষ্ঠানটি লোকসান গুনেছে। তবে এখন কিছুটা লাভে আছে। রবি বাংলাদেশের শেয়ারবাজারেও তালিকাভুক্ত হচ্ছে। ডোকোমোর কাছ থেকে শেয়ার কিনে নিলে রবিতে ভারতী এয়ারটেলের হিস্যা দাঁড়াবে ৩১ শতাংশের কিছু বেশি।

অন্যদিকে এনটিটি ডোকোমো জাপানের সবচেয়ে বড় মোবাইল অপারেটর। নিজেদের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে তাদের গ্রাহকসংখ্যা ৭ কোটি ৩০ লাখ। বিশ্বের অন্তত ১৮টি দেশে নিজস্ব কার্যক্রম ও কোম্পানিতে শেয়ারের মাধ্যমে তাদের ব্যবসা রয়েছে। রবির শেয়ার ছেড়ে দেওয়ার বিষয়ে তারা আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা এখনো দেয়নি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0